ব্যাঙ্ক দেউলিয়া হয়ে বন্ধ হলে গ্রাহকদের ৫ লক্ষ টাকা করে বিমা দেবে সরকার

402

ওয়েব ডেস্ক, ১ ফেব্রুয়ারিঃ দিনদিন বাড়তে থাকা ব্যাঙ্ক ফ্রড ও ব্যাংকগুলির শোচনীয় দশা নিয়ে উদ্বেগ রয়েছে গ্রাহকদের মধ্যে। ব্যাঙ্কে যতই টাকা থাকুক না কেন ব্যাঙ্ক বন্ধ হয়ে গেলে এক লক্ষ টাকার বেশি পাওয়া যাবে না। এই আশঙ্কায় যখন অসহায় সাধারণ মানুষ কার্যত চিন্তায় জেরবার সেই অবস্থায় কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমনের গলায় কিছুটা সুরাহার বাণী।

এদিন সংসদে বাজেট পেশ করতে গিয়ে সাধারণ মানুষকে কিছুটা স্বস্তি দিয়ে সীতারমন বলেন, ব্যাঙ্ক বন্ধ হয়ে গেলে ৫ লক্ষ টাকা বিমা দেবে কেন্দ্রীয় সরকার। অর্থাৎ যে টাকার পরিমাণ ছিল কেবলমাত্র ১ লক্ষ টাকা তা বেড়ে হল ৫ লক্ষ টাকা।

সংসদে বাজেট পেশ করার সময় কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী বলেন, ব্যাঙ্কিং সেক্টরকে চাঙ্গা করতে বিশেষভাবে তৎপর কেন্দ্রীয় সরকার। ৩ লক্ষ ৫০ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে ব্যাঙ্কিং সেক্টরকে উজ্জীবিত করার জন্য। এরপরই তিনি বলেন, ব্যাঙ্ক যদি বন্ধ হয়ে যায় তাহলে ৫ লক্ষ টাকা বিমা দেবে কেন্দ্রীয় সরকার। যদিও অনেক বিশেষজ্ঞই বলছেন, এই ঘোষণায় কিছুটা স্বস্তি হলেও সাধারণ আমানতকারীদের কষ্টার্জিত টাকা সুরক্ষিত করার ক্ষেত্রে কোনও বড় পদক্ষেপ এটা নয়।

এদিন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, ব্যাঙ্কিং সেক্টরের ওপর বিশেষ নজরদারি চালানো হবে। ব্যাঙ্ক ঋণ প্রদান পদ্ধতির ওপর নজর থাকবে। বিভিন্ন কো-অপারেটিভ ব্যাঙ্ক বা অন্যান্য ব্যাঙ্কের কার্যপ্রণালীর ওপরও বিশেষভাবে নজর দেবে কেন্দ্রীয় সরকার।

এছাড়াও দেশের রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কিং ব্যবস্থায় বড়সড় পরিবর্তন হয়। বেশ কিছু সংযুক্তিকরণের ফলে দেশের রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের সংখ্যা ২৭ থেকে কমে হবে ১২। এর মধ্যে দশটি বড় রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক মিশে হয়ে যাচ্ছে ৪টি। পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক, ইউনাইটেড ব্যাঙ্ক ও ওরিয়েন্টাল ব্যাঙ্ক সংযুক্ত হচ্ছে। মিশে যাচ্ছে ইউনিয়ন, অন্ধ্র ও কর্পোরেশন ব্যাঙ্ক। এলাহাবাদ ব্যাঙ্কের সঙ্গে সংযুক্ত হচ্ছে ইন্ডিয়ান ব্যাঙ্ক। মিশে যাচ্ছে কানাড়া ব্যাঙ্ক ও সিন্ডিকেট ব্যাঙ্কও। এর জেরেও মানুষের মনে ভয় জাগে ব্যাঙ্ক পরিষেবা নিয়ে।