বাসে পা রাখলেই দিতে হচ্ছে ১৫ টাকা, অভিযোগে সরব নিত্যযাত্রীরা

46

ওয়েব ডেস্ক, ৯ জুলাইঃ বিধিনিষেধ অনেকটা শিথিল হয়েছে। তাই রাস্তায় নেমেছে বেসরকারি বাস–অটো। করোনাভাইরাসের জেরে বাস মালিক থেকে সাধারণ মানুষ সবার পকেটেই টান পড়েছে। এই পরিস্থিতিতে এবার লাগামছাড়া ভাড়া নেওয়ার অভিযোগ উঠল বেসরকারি বাসের বিরুদ্ধে। সেখানে এখন পা রাখলেই ১৫ টাকা দিতে হচ্ছে বলে অভিযোগ। হাওড়া স্টেশন থেকে বড়বাজার নামাতেই যাত্রীর থেকে নেওয়া হচ্ছে ১৫ টাকা। প্রথম লকডাউন শেষে বাস চালু হতেই একধাক্কায় ভাড়া ১০ টাকায় পৌঁছে গিয়েছিল। এবার বেশ কিছু রুট শুরু থেকেই ১৫ টাকা ভাড়া নিয়ে নিচ্ছে বলে অভিযোগ। আর তারপর চার কিলোমিটার অন্তর ভাড়া বাড়াচ্ছে পাঁচ টাকা করে। সুতরাং বাসে উঠেও নাভিশ্বাস উঠছে সাধারণ মানুষের।

যাত্রীদের অভিযোগ, সরকার ভাড়া ঠিক না করে দিলে যা খুশি ভাড়া নিচ্ছে বেসরকারি বাসগুলি। এই বিষয়ে রাজ্যের পরিবহণমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম বলেন, ‘‌এরকমভাবে বাড়তি ভাড়া নেওয়া বেআইনি। সাধারণ মানুষ এমনিতেই সমস্যার মধ্যে রয়েছেন। বাড়তি ভাড়া না নিতে বাস মালিকদের অনুরোধ করছি।’‌

এদিকে বাস মালিকদের বক্তব্য, পেট্রোল–ডিজেলের দাম বহুগুণ বেড়ে গিয়েছে। তাতে ভাড়া বেশি নেওয়া ছাড়া অন্য কোনও উপায় নেই। সোমবার থেকে আরও বেশি বাস রাস্তায় নামবে। বাসের ভাড়া বাড়ায়নি সরকার। মকুব করা হয়েছে রোড ট্যাক্স। কিন্তু তাতেও সামাল দেওয়া যাচ্ছে না খরচ। অন্যদিকে মাত্রাতিরিক্ত ভাড়া হাঁকছেন বলে অভিযোগ যাত্রীদের। হাওড়া থেকে অধিকাংশ রুটের বাসে পা দিলেই গুণতে হচ্ছে ১৫ টাকা বলে অভিযোগ।