পেট্রোল-ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে অবস্থান বিক্ষোভের পাশাপাশি গণস্বাক্ষর সংগ্রহ মাথাভাঙ্গায়

42

কাজল রায়, মাথাভাঙ্গাঃ পেট্রোল ডিজেল ও রান্নার গ্যাস এবং নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে গতকাল থেকে শুরু হয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে অবস্থান বিক্ষোভ প্রতিবাদ কর্মসূচি। মাথাভাঙ্গা শীতলকুচি মেখলিগঞ্জ সহ অন্যান্য স্থানে এই কর্মসূচি চলছে। আজ অভিনব কায়দায় তৃণমূল কংগ্রেস এবং তৃণমূল যুব কংগ্রেসের পক্ষ থেকে মাথাভাঙ্গা ১ নং ব্লক এর পচাগর গ্রাম পঞ্চায়েতের পঞ্চানন মোরে, পঞ্চানন বর্মার মূর্তির সম্মুখে অবস্থান বিক্ষোভ কর্মসূচি চলছে। এদিন খালি গ্যাস সিলিন্ডার, ফাঁকা পেট্রোলের ড্রাম, ফাঁকা সরিষার তেলের ড্রাম খালি অবস্থায় রেখে এই সমস্ত খালি সিলিন্ডার খালি ড্রামে লেখা রয়েছে, এত দাম খাব কি, পেট্রোল ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধি হচ্ছে কেন বিজেপি জবাব দাও। এই সমস্ত প্ল্যাকার্ড নিয়ে অবস্থান বিক্ষোভ চলছে মাথাভাঙ্গায়।

এদিন তৃণমূল যুব কংগ্রেসের পক্ষ থেকে অবস্থান মঞ্চ থেকে রাজ্য সড়কে গণতান্ত্রিক উপায়ে গাড়ি থামিয়ে পেট্রোল-ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে বিভিন্ন গাড়ির চালকদের স্বাক্ষর সংগ্রহ করা হয়। এদিনের এই কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন, তৃণমূল যুব কংগ্রেসের মাথাভাঙার ওয়ান বি ব্লকের সভাপতি জয়ন্ত রায়, পচা কর অঞ্চল সভাপতি কামাখ্যা ভ্রমন, মহিলা ব্লক সভানেত্রী মনি বালা বর্মন, যুবনেতা বিক্রম দত্ত, পচাগর গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান কবিতা বর্মন, মহিলা নেত্রী মনি বর্মন, মালতি রায়, রুপন সিন, সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

এদিন যুবনেতা জয়ন্ত রায় বলেন, “মমতা ব্যানার্জির নির্দেশে এবং অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশ অনুসারে গতকাল থেকে পেট্রোল ডিজেল গ্যাস এবং নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে অবস্থান বিক্ষোভ চলছে আজকেও তা চলছে। আমরা পেট্রোল-ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে গণস্বাক্ষর সংগ্রহ করছি। রাস্তা দিয়ে চলা প্রত্যেক গাড়ি মোটরসাইকেল ইত্যাদির চালকরা নিজের উদ্যোগে গণস্বাক্ষর করছেন। পাশাপাশি আমাদের আন্দোলনকে সমর্থন জানাচ্ছে। আগামী দিনে বিজেপির বিরুদ্ধে লাগাতার আন্দোলন কর্মসূচি চালিয়ে যাবে তৃণমূল কংগ্রেস এবং তৃণমূল যুব কংগ্রেস।”

দুই দিন ধরে চলা দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে মাথাভাঙ্গা শীতলকুচি, মেখলিগঞ্জ, নিশিগঞ্জ, প্রভৃতি স্থানে ধারাবাহিকভাবে অবস্থান বিক্ষোভ চলছে। অবস্থান-বিক্ষোভ তৃণমূল নেতাকর্মীদের উপস্থিতি লক্ষ করা গেছে প্রচুর। এই কর্মসূচিতে কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।