কোচবিহারে কিশোর মৃত্যুর ঘটনায় দোষীদের শাস্তির দাবি, এসপির দারস্থ প্রতিবেশীরা

33

কোচবিহার,১১সেপ্টেম্বরঃ কিশোর আবাসনের মৃত্যুর ঘটনায় দোষীদের শাস্তির দাবিতে এবার পুলিশ সুপারের দারস্থ হল মৃতের পরিবার। সোমবার রাতে কোচবিহার ১ নং ব্লকের ঘুঘুমারিতে অবস্থিত শিশু সেবা ভবনে এক আবাসিক পড়ুয়া অগ্নিদগ্ধ হয়ে মৃত্যু হয়। মূলত ঘটনায় অভিযোগের আঙ্গুল ওঠে ওই আবাসিকে থাকা দুই সহপাঠীর বিরুদ্ধে, এমনকি এবিষয়ে আশ্রম কর্তৃপক্ষের গাফিলতিও ওই মৃত্যুর পিছনে দায়ী বলে অভিযোগ পরিবারের। 

প্রসঙ্গত, কোচবিহার শহরের ৫ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা গীতা মাহাতোর ছেলে মহাদেব মাহাতো (১৫) দীর্ঘদিন ধরে ওই আবাসনে থাকত। জানা গেছে আবাসনের আর এক কিশোরের ঘড়ি ভাঙ্গাকে কেন্দ্র করে গত ৬ মাস থেকে গোলমাল হয়েছিল তার। এই বচসা সোমবার চূড়ান্ত আকার নেয়। পরিবারের অভিযোগ তার শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। মঙ্গলবার পরিবারের পক্ষ থেকেও একটি অভিযোগ দায়ের করা হয় কোতোয়ালী থানায়। এরপর মঙ্গলবার মৃতের স্বজন ও প্রতিবেশীরা ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্তের দাবী করেন এবং দোষীদের শাস্তির দাবী করে। এদিন মৃতের   প্রতিবেশী সীমা ঘোষ এবং রাখি বোস অভিযোগ করে বলেন, আমরা মৃত ছাত্রের দোষীদের শাস্তির দাবী জানাচ্ছি। ওই দুই বন্ধু তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে। আমরা অবিলম্বে দোষীদের শাস্তির দাবী করছি পাশাপাশি ঘটনার সাথে আশ্রম কর্তৃপক্ষের কেউ কেউ জড়িত আছে বলে আমরা মনে করছি।