বিয়ে বাড়িতে বাচ্চা চুরির ঘটনায়, গণপ্রহার অভিযুক্তকে

60

ওয়েব ডেস্ক, ২১ জানুয়ারিঃ আনন্দের মধ্যে যদি কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে তাহলে কি হবে? যদি বিয়ে বাড়ি থেকে কোন বাচ্চা চুরি হয়ে যায় তবে আনন্দ কি আর আনন্দ থাকবে? এমনি এক ঘটনার সাক্ষী থাকল মালদহের ৩৪ নম্বর। বিয়ে বাড়ি থেকে বাচ্চা চুরির চেষ্টার অভিযোগ উঠল এক যুবকের বিরুদ্ধে। যদিও অভিযুক্তকে ধরে গণপ্রহার দিয়ে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছেন গ্রামবাসীরা।

জানা গেছে, প্রথমে তিনি ভেবেছিলেন ঐ যুবক বিয়ে বাড়ির অতিথি হতে পারে। পরে বিষয়টি বুঝতে পেরে তাকে আটকে রাখা হয়। ইতিমধ্যে এলাকায় ঘটনার কথা জানাজানি হতেই স্থানীয় বাসিন্দারা ছুটে আসেন। এবং তাঁরাই ওই অভিযুক্তকে ধরে মারধোর করে বলে অভিযোগ।  এবং মারাধরের পর পুলিশকে খবর দেয় স্থানীয় বাসিন্দারা। ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে আহত ওই যুবকে উদ্ধার করে মালদহ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি করে। বর্তমানে ওই যুবক স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে ইংরেজবাজার থানার পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, রবিবার রাতে সপরিবারে মালদহে শ্যালকের বিয়েতে গিয়েছিলেন পেশায় ব্যবসায়ী অনুপ দাস। রাত ১০টা নাগাদ বাচ্চারা যখন বাইরে নাচানাচি করছিল সেই সময়, অজ্ঞাত পরিচয় এক যুবক অনুপ দাসের দু বছরের মেয়েকে কোলে নিয়ে রথবাড়ি বাসস্ট্যান্ডের দিকে হাঁটতে শুরু করে। বিষয়টি অনুপ দাসের শ্যালক ছোটন সিং-এর নজরে আসতে ওই যুবককে ধরে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেন তিনি। ঐ যুবকের বিরুদ্ধে ইংলিশবাজার থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন অনুপ দাস। অভিযুক্তকে জিজ্ঞাসাবাদ করে ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ।