বিশ্বব্যাপী গণতন্ত্র সূচকে ১০ ধাপ নীচে নামল ভারত!

389

ওয়েব ডেস্ক, ২৩ জানুয়ারিঃ গোটা দেশ সিএএ নিয়ে প্রতিবাদে সরব। প্রতিবাদ করতে গিয়ে জেলে যাওয়াই শুধু নয়, প্রাণও খোয়াতে হয়েছে অনেককে। সেই বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইন, সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিল, এনআরসি জিডিপি’র হার ক্রমাগত হ্রাস, চূড়ান্ত অর্থনৈতিক সংকট- এরকম টালমাটাল পরিস্থিতির মধ্যে ভারতের জন্য আরও এক লজ্জাজনক তথ্য সামনে এল।ইকোনমিস্ট ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (ইআইইউ)-র তথ্য অনুযায়ী, গণতান্ত্রিক সূচকে ১০ ধাপ পিছিয়ে গেল ভারত।

বিশ্ব গণতন্ত্র সূচকে দেখা গিয়েছে ১০ ধাপ নেমে ৫১ নম্বরে রয়েছে ভারত। ২০০৬ সালে প্রথম রিপোর্ট প্রকাশ করেছিল তারা। তার পরের বছরে ভারতের প্রাপ্ত নম্বর ছিল ১০ মধ্যে ৭.২৩। আর এবারে তা কমে দাঁড়িয়েছে ৬.৯। আর গণতন্ত্র সূচকে গড় রয়েছে ১০ এর মধ্যে ৫.৪৪।

প্রকাশিত হওয়া এই রিপোর্ট থেকে জানা গিয়েছে ব্যক্তি স্বাধীনতা না থাকার কারণেই গণতন্ত্র সূচকে পিছিয়ে গিয়েছে ভারত। এছাড়াও জানানো হয়েছে নাগরিকত্ব আইনের জেরে ২০২০ সালেও নীচের দিকে থাকবে ভারত। এছাড়াও ওই রিপোর্টে উঠে এসেছে জম্মু ও কাশ্মীরের পরিস্থিতি। গণতন্ত্র সূচকে সবার উপরে রয়েছে নরওয়ে। তারপরেই রয়েছে আইসল্যান্ড। তার পরে রয়েছে সুইডেন এবং নিউজিল্যান্ড। পাঁচ নম্বরে রয়েছে ফিনল্যান্ড। ১০৮ নম্বরে রয়েছে পাকিস্তান।

সামগ্রিক নম্বর ছয়ের চেয়ে কম ও চারের চেয়ে বেশি হলে সেটিকে গণতন্ত্র এবং একনায়কতন্ত্রের মাঝামাঝি বলে ধরা হয়। চারের নীচে নম্বর নামলে তা ‘একনায়কতন্ত্র’।