স্মার্টফোন নিষিদ্ধ করল ভারতীয় নৌসেনা

292

ওয়েব ডেস্ক, ৩০ ডিসেম্বরঃ দেশের নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে কোন রকম ঝুঁকি নিতে রাজি নয় প্রশাসন।তাই এবার থেকে নৌঘাঁটি হোক বা নৌবহর কোনও জায়গাতেই আর স্মার্টফোন ব্যবহার করতে পারবেন না ভারতীয় নৌবাহিনীর সদস্যরা।পাশাপাশি নিষিদ্ধ করা হয়েছে ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম, হোয়াটসঅ্যাপের মতো বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাপও।নিরাপত্তার কারণে এবং গুপ্তচরবৃত্তি রুখতে এমন পদক্ষেপ বলেই জানিয়েছে নৌবাহিনীর সূত্র।

সম্প্রীতি, গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে গত ২০ ডিসেম্বর বিশাখাপত্তপনম, মুম্বই এবং কর্নাটকের কারওয়ার থেকে সাত জন ভারতীয় নৌসেনাকে গ্রেফতার করেছিল অন্ধ্রপ্রদেশ পুলিশ। ‘হানি ট্র্যাপ’-এর শিকার হয়ে পাকিস্তানে তথ্য পাচারের অভিযোগ উঠেছে তাঁদের বিরুদ্ধে। ওই সাত জন ছাড়াও  হাওয়ালা কারবারের সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয় বিশাখাপত্তনমের এক ব্যবসায়ীকে।  

অপারেশন ‘ডলফিন নোজ’ নামে ওই তদন্তের সঙ্গে যুক্ত কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার এক কর্তা জানিয়েছেন, ধৃত সাত নৌসেনা ২০১৭-তে নাবিক হিসেবে বাহিনীতে যোগ দেন। অভিযোগ, বাহিনীর নিয়ম ভেঙে ফেসবুকে অন্য নামে অ্যাকাউন্ট খোলেন তাঁরা। ২০১৮-তে ফেসবুকের মাধ্যমেই এক মহিলার সঙ্গে আলাপ হয় তাঁদের। সেখান থেকে ঘনিষ্ঠতা বাড়ে। পরে জানা যায়, এক জন নন, তিন জন মহিলা এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত। তাঁরা নৌসেনাদের ব্ল্যাকমেল করে নৌবাহিনীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ তথ্য হাতিয়ে নিয়ে তা পাকিস্তানে পাচার করে। সেনাবাহিনীতে হানি ট্র্যাপ-এর ঘটনা এর আগেও ঘটেছে।কিন্তু ভারতীয় নৌসেনা বাহিনীতে এই ঘটনা যথেষ্ট চিন্তায় ফেলে বাহিনীর শীর্ষ মহলকে।আগামী দিনে এই ধরণের ঘটনা আটকাতে তাই তড়িঘড়ি স্মার্টফোন ও সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাপের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হল ।