ভারতীয় রেলে প্রশাসনিক কাঠামো ভেঙে পরিচালন ব্যবস্থার আমূল পরিবর্তন হতে চলেছে

219

ওয়েব ডেস্ক, ২৫ ডিসেম্বরঃ ভারতীয় রেলে আমূল পরিবর্তন করা হচ্ছে। গতকাল কেন্দ্রীয় মন্ত্রীসভা বৈঠকে সেই পরিবরতেন্র প্রস্তাবের অনুমোদন মিলল।

যার জেরে ভারতীয় রেলের রেল সার্ভিসের গ্রুপ এ সার্ভিস বদলে রেলের আটটি সর্বোচ্চ কাঠামোর নতুন নাম হবে ভারতীয় রেলওয়ে ম্যানেজমেন্ট সার্ভিস। রেলের আওতায় থাকা বিভিন্ন পৃথক দফতরকেও একত্রিত করে একটিই বিভাগ করা হবে। সেটি হল ভারতীয় রেলওয়ে সার্ভিস। তাছাড়া এক্ষেত্রে আরও একটি তাৎপর্যপূর্ণ পদক্ষেপ হল রেলওয়ে সার্ভিসের সর্বোচ্চ স্তরের কর্তাদের পাশাপাশি কয়েকজন স্বাধীন সদস্য থাকবেন, যাদের আনা হবে বেসরকারি ক্ষেত্রে থেকে ৷রেলমন্ত্রের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, রেলওয়ে প্রোটেকশন ফোর্স এবং মেডিকেল সার্ভিস ছাড়া আর কোনও শাখাতে পৃথক প্রশাসনিক কাঠামো থাকছে না। এই ভাবে রেলের সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারক রেলবোর্ডের পরিকাঠামোকেও অনেক হালকা করা হচ্ছে। এখন যেখানে রেলওয়ে বোর্ডের চেয়ারম্যান ছাড়াও আরও সাতজন সদস্য থাকে। এই সংখ্যাটি কমিয়ে করা হচ্ছে- চেয়ারম্যান ছাড়া চারজন সদস্য৷ ম্যানেজমেন্ট ক্ষেত্রে বিশেষ জ্ঞানসম্পন্ন বিভিন্ন পেশায় থাকা বিশেষজ্ঞদের আনা হবে। বিশেষ ভূমিকা থাকবে এই স্বাধীন সদস্যদের। কর্পোরেট সংস্থার অনুকরণে রেল প্রশাসনের সর্বোচ্চ পদের নাম হবে চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার। অন্যদিকে ইন্ডিয়ান রেলওয়ে মেডিকেল সার্ভিসের নাম বদলে হচ্ছে ইণ্ডিয়ান রেলওয়ে হেলথ সার্ভিস।রেলমন্ত্রী জানিয়েছেন, রেলকে পেশাদার সংস্থা হিসেবে গড়ে উঠতে হবে, যাতে বাণিজ্যিকভাবেও লাভজনক হয়ে ওঠে। আগামী ১২ বছরে ৫০ লক্ষ কোটি টাকা লগ্নি করা হবে রেলে। এই বিষয়ে রেলমন্ত্রী পীযুষ গোয়েলকে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান, এ ভাবে সমস্ত দফতর ও বিভাগকে একই ছাতার নীচে নিয়ে আসা হবে। রেলমন্ত্রী আশ্বস্ত করেছেন জানিয়েছেন, এই পরিবর্তন কোনও প্রভাব ফেলবে না। ১৬৭ বছরের পুরনো ভারতীয় রেলে রয়েছে, ট্রাফিক, সিভিল, মেকানিক্যাল, ইলেকট্রিক্যাল, সিগন্যাল, স্টোর, পার্সোনেল, ফিনান্স ইত্যাদি নানা বিভাগ আছে । সব বিভাগেই সর্বোচ্চ স্তরে একজন করে সচিব স্তরের আধিকারিক (সদস্য, রেল বোর্ড) রয়েছেন। এবার আর কোনও পৃথক বিভাগই থাকবে না।