চেনা যাচ্ছে না বন্দি,কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লাকে, দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা, ট্যুইট মমতার

473

ওয়েব ডেস্ক, ২৬ জানুয়ারি: উপত্যকায় মোবাইল ফোন ও ইন্টারনেট পরিষেবা ফের চালু হলেও, এখনও রাজনৈতিক নেতাদের মুক্তি দেওয়া হয়নি। ন্যাশনাল কনফারেন্স নেতা ওমর আবদুল্লার দাড়ি মুখের ভাইরাল হওয়া ছবি টুইট করে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রশ্ন, গণতান্ত্রিক দেশে কবে এসবের শেষ হবে?

কাশ্মীরে তিনশো সত্তর ধারা রদের পর থেকেই বন্দি ন্যাশনাল কনফারেন্স নেতারা। এই অবস্থায় নয়াদিল্লির ওপর চাপ বাড়িয়ে ওয়াশিংটন উপত্যকার বন্দি নেতাদের মুক্তি দিতে বলেছে। এই অবস্থায় জম্মু-কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর ছবি টুইট করে মুখ্যমন্ত্রীর মন্তব্য, তিনি চিনতেই পারছেন না ন্যাশনাল কনফারেন্স নেতা ওমর আবদুল্লাকে। ভারতের মতো গণতান্ত্রিক দেশে গণতান্ত্রিক অধিকার লঙ্ঘন হওয়া দুর্ভাগ্যজনক মন্তব্য করে মুখ্যমন্ত্রী প্রশ্ন তুলেছেন, কবে এসবের অবসান হবে।

জম্মু ও কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা ন্যাশনাল কনফারেন্স নেতা ওমর আবদুল্লার চেহারা বদলে গিয়েছে। তাঁর এখন মুখভর্তি দাড়ি। দেখে চট করে চেনার উপায় নেই। ওমরের এই ছবি ট্যুইট করেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি লিখেছেন, ‘এই ছবি দেখে আমি ওমরকে চিনতে পারিনি। আমার খারাপ লাগছে। এটা দুর্ভাগ্যজনক যে আমাদের গণতান্ত্রিক দেশে এটা ঘটছে। কবে এর শেষ হবে?’
গত বছরের ৫ অগাস্ট জম্মু ও কাশ্মীর থেকে সংবিধানের ৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের পরেই জম্মু ও কাশ্মীরের রাজনৈতিক নেতা, সমাজকর্মী, আইনজীবী, ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়। ওমর ছাড়াও আটক করা হয় তাঁর বাবা ফারুক আবদুল্লা, অপর এক প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতিকে। উপত্যকায় মোবাইল ফোন ও ইন্টারনেট পরিষেবা ফের চালু হলেও, এখনও রাজনৈতিক নেতারা বন্দিই।