প্রয়াত বিশ্বের ক্ষুদ্রতম পুরুষ খগেন্দ্র

659

ওয়েব ডেস্ক, ১৮ জানুয়ারিঃ প্রয়াত হলেন বিশ্বের সব থেকে ক্ষুদ্রতম পুরুষ খগেন্দ্র থাপা মগর। নেপালের এই বাসিন্দা আচমকাই নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়ে শুক্রবার শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন নেপালের এক হাসপাতালে।মৃত্যুর সময়ে তাঁর বয়স হয়েছিল ২৭ বছর।

খগেন্দ্র থাপা মাগারের উচ্চতা ছিল মাত্র মাত্র ২ ফুট ৪২ ইঞ্চি।পোখরায় মা-বাবার সঙ্গেই থাকতেন খগেন্দ্র। সংবাদসংস্থা দেওয়া সাক্ষাত্কারে তাঁর ভাই জানিয়েছেন,‘নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়ে বেশ কয়েকবার হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিল ও।কিন্তু এবার ওর হৃদযন্ত্রও বিকল হয়ে পড়ে।’

২০১০ সালে ১৮ বছরের জন্মদিনের পরই তাঁকে বিশ্বের ক্ষুদ্রতম পুরুষ হিসেবে ঘোষণা করা হয় গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস-এ। খগেন্দ্রর বাবা রূপ বাহাদুর জানিয়েছেন, ‘জন্মের সময়ে ও এতটাই ছোট ছিল যে হাতের তালুর মধ্যে ধরে যেত। ওকে স্নান করানো খুবই সমস্যার ছিল। এতটাই ছোট ছিল ও।’

১৯৯২ সালের ১৪ অক্টোবর পোখরাতেই জন্ম হয় খগেন্দ্রর। তাঁর উচ্চতার জন্য ছোটবেলায় তাঁকে অনেক কটাক্ষ শুনতে হলেও গিনেস রেকর্ডের পর থেকে তিনি  বিখ্যাত হয়ে যান।তাঁর নামে একটা ফাউন্ডেশন তৈরি করা হয়।পরের বছর জুনরে গিনেস রেকর্ড খগেন্দ্রর কাছ থেকে ছিনিয়ে নিলেও নেপালে তাঁর খ্যাতি কমেনি।বিভিন্ন জায়গা থেকে নিমন্ত্রণ আসত তাঁর।