একের পর এক খুঁটিপূজা, উৎসবে মাতছে কোচবিহার

25

কোচবিহার, ৮ সেপ্টেম্বরঃ  জলের আরেক নাম জীবন, জল ছাড়া প্রানের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখা সম্ভব নয়। আগামী কয়েক বছরের মধ্যে পৃথিবীর বুকে আসতে চলছে চরম জলসংকট। জল সংরক্ষণের আবেদন নিয়ে মানুষের মধ্যে সচেতনতা বাড়াতে এগিয়ে আসছে বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন গুলি। এরাজ্যেও রয়েছে জল ধরো জল ভরো কর্মসূচী। এবারে সেই জল সংরক্ষণের বার্তা নিয়ে এগিয়ে এলো কোচবিহার নিউটাউন ইউনিট। এবার তাদের পুজোর থিম ‘জল ভরো যতনে, প্রান রবে ভুবনে’। রবিবার খুঁটি পূজোর মধ্য দিয়ে এই দুগোৎসবের সূচনা হয়। এই পুজো প্রস্তুতিকে ঘিরে স্থানীয়দের মধ্যে উদ্মাদনা লক্ষ্য করা যায়।

এদিনের এই খুঁটি পুজোকে ক্লাব সদস্য পাপন সেন বলেন, প্রতিবারের মতো এবারও আমরা এই পুজো করতে চলছি। আমাদের এবাবের থিম জল সংরক্ষণ। এই পৃথিবিতে জল সংকট দেখা দিলে জীবকুলের অবস্থা কি হবে তা ফুটিয়ে তোলা হবে মাটির চিত্রপটের মাধ্যমে। এছাড়াও এ পুজো নিয়ে থাকছে বৃক্ষরোপণ, পথ নিরাপত্তার মতো বিশেষ কিছু কর্মসূচী।

এবারে এই পুজো পা দিল ৫১ তম বর্ষে। কোচবিহারের নজরকাড়া পুজো গুলির মধ্যে কোচবিহার নিউটাউন ইউনিটের পুজো অন্যতম। এবারে এই পুজোর বাজেট প্রায় ৭ লক্ষ টাকা। আলো দিয়ে চারিপাশ ফুটিয়ে তুলতে থাকছে চন্দননগরের আলোকসজ্জা।

অন্যদিকে শহরতলির শক্তি সংঘেও শারদ উৎসবের সুচনা হয় এদিন। কোচবিহার ২নং কালীঘাট রোডের এই পুজোর থিম গ্রাম্য পরিবেশ। এদিন খুঁটি পূজোর মাধ্যমে এই উৎসবের শুভারম্ভ হল। পূজো কমিটির সম্পাদক সুজিত দে ভৌমিক বলেন, জল সংরক্ষণের বার্তাও থাকবে এই পূজো অঙ্গনে। জেলার তুফানগঞ্জ শহরের ন্যাশনাল ক্লাবের ৪১ তম পূজোর খুঁটি পুজো হয় এদিন। এবছর এই ক্লাবের পূজোর থিম চন্দ্রযান। এদিন এই পুজো কমিটির পক্ষে প্রসেনজিৎ বসাক বলেন, ন্যাশনাল ক্লাবের পুজোর একটি ঐতিহ্য রয়েছে শুধু তুফানগঞ্জই নয় জেলার নজর কাড়া পুজো গুলির মধ্যে এ পুজো অন্যতম। আমরা আশা করছি এবছরও পুজোয় দর্শনার্থীদের ঢল নামবে।