কেরলের ইডুক্কি জেলার মুন্নারে ভুমিধস, উদ্ধার ৫ জনের মৃত দেহ, আটক বহু

37

ওয়েব ডেস্ক, ৭ আগস্টঃ একদিকে দেশের বিভিন্ন রাজ্যে জাকিয়ে বসেছে করোনা ভাইরাস। আর তাঁর মাঝেই প্রবল বর্ষণের ফলে কেরলের একাধিক জায়গায় ধস পড়েছে। তারমধ্যে ইডুক্কি জেলার মুন্নারের কাছে অবস্থিত রাজামালা এলাকায় ভূমিধসের জেরে ৮০ জনের বেশি ধ্বংসস্তূপের নিচে চাপা পড়ে রয়েছেন বলে খবর পাওয়া গিয়েছে।

জানা গিয়েছে, এখনও পর্যন্ত ১০ জনকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। সেই সঙ্গে ৫ জনের মৃতদেহও উদ্ধার করা হয়েছে। তবে তড়িঘড়ি বাকিদের উদ্ধার না করা গেলে মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। স্থানীয় প্রশাসনের মতে টানা তিনদিন অতিবৃষ্টির জেরেই এমন ভযাবহ ঘটনা ঘটেছে। এমনিতেই মুন্নারের বিস্তীর্ণ অঞ্চল জুড়ে রয়েছে চা বাগান। ফলে ব্যাপক পরিমানে ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে।

প্রাথমিকভাবে ঘটনাস্থলে ১৫টি অ্যাম্বুল্যান্স পাঠানোর পাশাপাশি চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদেরও পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু, প্রতিকূল পরিস্থিতির জন্য উদ্ধার কাজ চালাতে খুব সমস্যা হচ্ছিল। তাই ধসে আটকে পড়া মানুষদের উদ্ধার করতে ভারতীয় বায়ু সেনার কাছে সাহায্য চেয়েছেন কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন। পাশাপাশি দমকল ও বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তরের ৫০ জন কর্মীকেও দুর্ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে।

প্রশাসন সূত্রে জানানো হয়েছে, এর্নাকুলাম ও কোট্টায়াম-সহ অন্য অনেক জেলাতেও ভূমিধসের খবর পাওয়া গিয়েছে। ইতিমধ্যে সেখানে চিকিৎসক দলও পাঠানো হয়েছে। এদিকে আগামী ১১ আগস্ট পর্যন্ত ইডুক্কি, মাল্লাপুরম ও ওয়ানাড় জেলার ভারী বর্ষণের সম্ভাবনা আছে বলে সতর্ক করেছে আবহাওয়া দপ্তর। ফলে আরও চিন্তায় পড়েছে পিনারাই বিজয়নের প্রশাসন।