খড়দহে প্রবীণ সাংবাদিক গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে পথে নেমে বিক্ষোভ দেখাল বাম কংগ্রেস

117

ওয়েব ডেস্ক,১৮ অক্টোবরঃ রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে কড়া ভাবে সমালোচনা করায় গ্রেপ্তার হতে হল বর্ষীয়ান সাংবাদিক সন্ময় বন্দ্যোপাধ্যায় বলে অভিযোগ এনে এবারে পথে নামল বাম কংগ্রেস। শুক্রবার এই ঘটনার প্রতিবাদে খড়দহ থানায় বিক্ষোভ করেন তাঁরা ৷ ঘটনায় সরব হয়েছেন লোকসভার কংগ্রেস দলনেতা অধীর রঞ্জন চৌধুরীও।

প্রসঙ্গত, সোশ্যাল মিডিয়ায় কট্টর সরকার বিরোধী বলে পরিচিত এই বর্ষীয়ান সাংবাদিক। এর পাশাপাশি তাঁর একটি ইউটিউব চ্যানেলও রয়েছে। প্রবীণ এই সাংবাদিক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন সাফল্যের সাথেও। তিনি বাংলার রাজ্য রাজনীতি নিয়ে নিয়মিত একাধিক ভিডিও পোস্ট করতেন তাঁর চ্যানেলে। গতকাল রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে সেইরকমই একটি ভিডিও পোস্ট করছিলেন তিনি। সেই ভিডিওটিতে রাজ্য সরকারকে তুলোধোনা করা হয়েছে একাধিকবার। ভিডিওটি পোস্ট করার পর থেকে সমালোচনার ঝড় ওঠে সোশ্যাল মিডিয়াজুড়ে।

সাড়ে ১৭ মিনিটের ওই ভিডিও পোস্টটির নাম ছিল এই ‘বঙ্গে তুমি নেই কে বলল? শুনুন বাংলার বার্তা  নামের শিরোনাম দিয়ে একটি অনুষ্ঠানের ভিডিওতে তিনি রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে কড়া ভাষায় প্রতিবাদ জানান বলে অভিযোগ ওঠে। এরপরই রাজ্য সরকারের পুলিশ ওই প্রবীণ সাংবাদিককে গ্রেপ্তার করে বলে অভিযোগ, ধারাবাহিকভাবে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে সমালোচনা করায় গত ২৩ সেপ্টেম্বর প্রদেশ কংগ্রেসের মুখপাত্র তথা প্রবীণ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে পুরুলিয়া সাইবার থানায় একটি অভিযোগ দায়ের হয় ৷

সেই অভিযোগের ভিত্তিতে, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তাঁর বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করা হয়৷ সন্ময় বন্দ্যোপাধ্যায়কে তাঁর বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয় বলে অভিযোগ৷ আজ তাঁকে পুরুলিয়া জেলা আদালতে তাঁকে তোলা হয় ৷ এর প্রতিবাদে শুক্রবার খড়দা থানার সামনে বিক্ষোভ দেখান কংগ্রেস ও বাম কর্মী সমর্থকেরা ৷ বিশিষ্ট আইনজীবী তথা কংগ্রেস নেতা অরুণাভ ঘোষ সহ রাজ্য নেতৃত্বরা এদিনের  বিক্ষোভে সামিল হন বলেও জানা গেছে।

এই বিষয়ে সংবাদমাধ্যমকে প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি সোমেন মিত্র বলেন, রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে মন্তব্য করায় সন্ময় বন্দ্যোপাধ্যায়কে গ্রেপ্তার করা হয়েছে ৷ পাশাপাশি বাড়ি থেকে তাঁকে সন্ত্রাসবাদীদের মত তুলে নিয়ে যাওয়ার হয়েছে বলে অভিযোগ করে বলেন তিনি ৷ একই সঙ্গে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে অসহিষ্ণুতার অভিযোগ আনে প্রদেশ কংগ্রেস।