বাংলাদেশে ‘দুর্গাপুজোর মণ্ডপে মৌলবাদী আক্রমণের বিরুদ্ধে দিনহাটা শহরে ধিক্কার মিছিল বামফ্রন্টের

338

দিনহাটা, ১৬ অক্টোবরঃ বাংলাদেশে শারদীয়া উৎসবে মৌলবাদী আক্রমণের বিরুদ্ধে সারা রাজ্যের সাথে সাথে দিনহাটা শহরে ধিক্কার মিছিল বামফ্রন্টের। শনিবার সন্ধ্যায় দিনহাটা পাঁচ মাথায় মোড়ে সংক্ষিপ্ত সভা হয়। এবং সেখান থেকে ওই মিছিলে বের হয়ে শহরের বিভিন্ন রাস্তায় পরিক্রমা করে আবার সেখানে গিয়েই শেষ হয় বলে জানা গিয়েছে। এদিন ওই ধিক্কার মিছিলের নেতৃত্ব দেন ফরওয়ার্ড ব্লক নেতা তথা দিনহাটা উপ নির্বাচনের প্রার্থী আব্দুর রউফ। তিনি ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বিকাশ মন্ডল, সিপিআইএম নেতা প্রবীর পাল, শুভ্রা লোক দাস, সিপিআই নেতা রবীন্দ্র নাথ বর্মন সহ আরও অনেকে।

এদিন এবিষয়ে ফরওয়ার্ড ব্লক নেতা তথা দিনহাটা উপ নির্বাচনের প্রার্থী আব্দুর রউফ বলেন, ‘দুর্গাপুজোর মধ্যে বাংলাদেশের একাধিক মণ্ডপে তাণ্ডব চালায় কিছু মৌলবাদীরা আক্রমন করেন। সেই মৌলবাদীরা বাংলাদেশ ও ভারতবর্ষ জুড়ে ধিক্কার মিছিল বের করেন। তার অংশ হিসেবে পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন জায়গা আমরা ওই মৌলবাদীদের বিরুদ্ধে আমরা ধিক্কার মিছিল জানাচ্ছি। আমরা চাই বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী সেখ হাসিনা যাতে ওই মৌলবাদীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়। সেই আবেদনেই রাখছি আমরা বামপন্থীরা।‘

উল্লেখ্য, দুর্গাপুজোর মধ্যে বাংলাদেশের একাধিক মণ্ডপে তাণ্ডব চালানো হয়েছে। বাংলাদেশের এক স্বনামধন্য সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন অনুযায়ী, একটি পুজো মণ্ডপে কোরান শরিফের অসম্মান করা হয়েছে বলে সোশ্যাল মিডিয়ায় কিছু পোস্ট ছড়িয়ে পড়ে। এরপর মণ্ডপে ভাঙচুর শুরু হয়। চাঁদপুরের হাজিগঞ্জ, চট্টগ্রামের বাঁশখালি, চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ এবং কক্সবাজারের পেকুয়ায় বিভিন্ন মন্দিরে হামলা চালানো হয়। বেশ কিছু ছবিও প্রকাশ্যে আসে যাতে দেখা যায় দুর্গা প্রতিমা ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই সব প্রতিমা ভাঙার ছবি ছড়িয়ে পড়ে। সেই ঘটনায় জামাত-ই-ইসলামির বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলা হয়েছে। সরকারের দাবি, হাসিনা সরকারের ভাবমূর্তি নষ্ট করতেই এই হামলা চালিয়েছে জামাত।