প্রেমিকের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার, সন্দেহের বশে প্রেমিকাকে আটকে রাখল স্থানীয়রা

184

পার্থ দাস বীরভূমঃ নিমগাছে যুবকের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হওয়ার ঘটনায় সন্দেহের বশে তাঁর প্রেমিকাকে আটক করে রাখল গ্রামের স্থানীয়রা।ঘটনাটি ঘটেছে,  সিউড়ির দত্তপুকুর পাড়ায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গতকাল দুপুরে সিউড়ির দত্তপুকুরের যুবক বিশ্বজিৎ কাহারকে ফোন করছিল সিউড়ির কুলেরা গ্রামের ওই যুবতী । তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক ছিল বলে জানা গেছে। আর এই সম্পর্ক কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছিল না যুবকের মা। সে কারণেই গতকাল ওই মেয়েকে ফোন করে গালাগালি যুবকের মা।শুধু তাই নয়, ওই মেয়ের সাথে সে যাতে কোনও রকম সম্পর্ক না রাখে তাও সাফ জানিয়ে দেন তিনি। এরপরই দুপুরে বাড়ি থেকে রাগ করে বেরিয়ে যায় ওই যুবক। বিকেল গড়িয়ে সন্ধ্যে হয়ে হলেও আর বাড়ি ফেরেনি সে।

আজ সকালে দত্তপুকুর পাড়া থেকে কিছুটা দূরে একটি নিমগাছ থেকে উদ্ধার হয় বিশ্বজিৎ-এর ঝুলন্ত দেহ। মৃতদেহের পাশ থেকে উদ্ধার হয় মেয়েদের ব্যাগ, ওড়না, মেয়েদের সাইকেল ও কয়েকটি চটি।

এরপরই স্থানীয়রা সন্দেহের বসে মেয়েটিকে তুলে নিয়ে আসে তার বাড়ি থেকে। এবং আটকে রেখে তাঁকে মারধোর করা হয় বলে অভিযোগ। এদিকে ঘটনার খবর পেয়ে সেখানে পৌঁছায় সিউড়ি থানার পুলিশ। পরে তাঁরা গিয়ে মেয়েটিকে উদ্ধার করে ঘটনাস্থল থেকে থানায় নিয়ে যায়।বিশ্বজিৎ-এর মায়ের দাবি, ওই মেয়েটি তার ছেলেকে খুন করা।

অপরদিকে ওই যুবতীর পরিবারের দাবি, যদি আমাদের মেয়ে সত্যিই কোনও দোষ করে থাকে , তাহলে তার শাস্তি হোক। তবে কি কারনে এই আত্মহত্যা তাঁর  পুর্নাঙ্গ তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।