পাক জেল থেকে পালাল মালালা ইউসুফজাইকে গুলি করা জঙ্গি !

168

ওয়েব ডেস্ক, ৭ ফেব্রুয়ারিঃ ২০১৪ সালে নোবেল শান্তি পুরষ্কার বিজয়ী মালালা ইউসুফজাইকে গুলি করা সহ বহু মামলায় দোষী ছিল তালিবান জঙ্গি এহসানুল্লাহ এহসান। পাকিস্তানে এক জেলে কাটছিল এহসানউল্লাহর দিন। তবে সেখান থেকে এবার পালিয়ে গেল কুখ্যাত এই জঙ্গি নেতা।

এক অডিও বার্তায় নিজেই পালিয়ে যাওয়ার খবর প্রকাশ করে এহসানউল্লাহ। আর এই ঘটনায় আরও একবার প্রমাণ হয়ে গেল যে জঙ্গিদের জন্যে স্বর্গরাজ্য পাকিস্তান। সেখানে জঙ্গিরা নিরাপদেই থাকে। যে অডিও বার্তা এই জঙ্গি দিয়েছে তাতে সে জানায়, ২০১৭ সালে আত্মসমর্পণ করার সময়ে পাকিস্তানি বাহিনী তাঁকে যে আশ্বাস দিয়েছিল, সেই আশ্বাস তাঁরা পূরণ করেনি। এই মন্তব্যর জেরে আরও ধোঁয়াশা বেড়েছে বিষয়টি নিয়ে। এরপর এহসানউল্লাহ জানায়, ১১ জানুয়ারি সে জেল থেকে পালাতে সক্ষম হয়।

তার বর্তমান অবস্থানের কথা প্রকাশ না করেই এহসান বলেন যে সে শীঘ্রই তার বন্দিদশা সম্পর্কে বিস্তারিত বক্তব্য দেবেন। মালালা ইউসুফজাইকে পাকিস্তানের সোয়াত উপত্যকায় ২০১২ সালে মেয়েদের শিক্ষার প্রচারের জন্য গুলি করা হয়েছিল। এই অডিও ক্লিপটিতে এহসানউল্লাহ এহসান বলেছে যে, সে একটি চুক্তির আওতায় ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ সালে পাকিস্তানি সুরক্ষা সংস্থার কাছে আত্মসমর্পণ করেছিল। কিন্তু বাহিনী আত্মসমর্পণের আগে তাদের প্রতিশ্রুতি রাখতে ব্যর্থ হয়েছিল।

সে বলে, “আমি চুক্তিটি প্রায় তিন বছর পালন করেছিলাম। কিন্তু এই বুদ্ধিমান সুরক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলি চুক্তি লঙ্ঘন করে আমাকে আমার বাচ্চাদের সাথে কারাগারে রেখেছিল” অবশেষে সে বাহিনী থেকে পালানোর সিদ্ধান্ত নেন। এহসানউল্লাহ এহসানের  অডিও-এর সত্যতা ও তার দাবির সত্যতা সুরক্ষা বাহিনী বা পাকিস্তান সরকার যাচাই করেনি।

২০১২ সালে মালালা ইউসুফজাইকে লক্ষ্য করে গুলি চালানোর ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত এই জঙ্গি। ২০১২ সালে স্কুল ফেরত মালালাকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় এই এহসান। তখন ১৬ বছর বয়সি হলেও, মালালা তখন থেকেই পাকিস্তানের সোয়াট উপত্যকায় নারীশিক্ষা নিয়ে প্রচার চালাচ্ছিলেন। সেই রাগেই তাঁকে গুলি করা হয়। যদিও সেই হামলা থেকে বেঁচে ফিরে আসেন মালালা। এখন লন্ডনে থাকেন তিনি।