পুজোর মুখে দুঃস্থ ও প্রতিবন্ধী শিশুদের নতুন পোশাক দিল মালদা প্রেস ক্লাব

49

বিশ্বজিৎ মণ্ডল, মালদা: পুজোর মুখে  দুঃস্থ ও প্রতিবন্ধী শিশুদের নতুন পোশাক দিল প্রেস ক্লাব অফ মালদা। বুধবার গান্ধী জন্মজয়ন্তী দিবস উপলক্ষে পুরাতন মালদা থানার কনফারেন্স হলে এই অনুষ্ঠানটি অনুষ্ঠিত হয়। পুরাতন মালদা থানার উদ্যোগে “চেতনা” নামক একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রায় ৬০জন শিশু,বালক, বালিকাদের বিভিন্ন ধরনের নতুন পোশাক তুলে দেওয়া হয়। তার সঙ্গে দেওয়া হয় মিষ্টির প্যাকেট। এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়েছিলেন পুলিশ সুপার অলোক রাজোরিয়া, পুরাতন মালদা থানার আইসি শান্তিনাথ পাঁজা। ছিলেন প্রেসক্লাব অব মালদার সভাপতি ভাস্কর রায়, সম্পাদক বিবেক সিংহ সহ অন্যান্য সদস্যরা।

এদিন ওইসব দুঃস্থ শিশুরা হাতে নতুন জামা কাপড় পেয়ে আনন্দে আপ্লুত হয়ে পড়েন। ওই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষিকারা দীর্ঘদিন ধরে বিনামূল্যে এইসব দুঃস্থ পড়ুয়াদের শিক্ষাদান দিয়ে চলেছেন। ওইসব পড়ুয়াদের পঠন-পাঠনের সামগ্রীর ক্ষেত্রে সমস্ত উদ্যোগ সহায়তা হাত বাড়িয়েছে পুরাতন মালদা থানার পুলিশ অফিসারেরা। উল্লেখ্য পুরাতন মালদা থানার মধ্যেই রয়েছে দুঃস্থ পড়ুয়াদের “চেতনা” নামক এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি। পুরাতন মালদা থানার পুলিশ অফিসারদের একাংশ কাজের ফাঁকে শিশুদের শিক্ষাদান দিয়ে থাকেন।  এর সঙ্গে রয়েছে বেশ কিছু শিক্ষক-শিক্ষিকা।

এদিনের অনুষ্ঠানের শুরুতেই পুলিশ সুপার অলোক রাজোরিয়া বলেন, সংশ্লিষ্ট থানার পুলিশ এবং সাংবাদিকদের একটি সংগঠনের উদ্যোগে এই প্রয়াস খুবই ভালো লেগেছে। এই ধরনের কর্মসূচি যেন আগামী দিনে ওই সংগঠন চালাতে পারে সেই আশা রাখবো। শিশুদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে যে ধরনের সহযোগিতার প্রয়োজন তার সবই করা হবে।

আইসি শান্তিনাথ পাঁজা জানিয়েছেন, দীর্ঘদিন ধরেই “চেতনা” নামক এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পঠন-পাঠন চালানো হচ্ছে সংশ্লিষ্ট থানার উদ্যোগে। এই স্কুলের চত্বরে একটি পার্কের ব্যবস্থা করা হবে। যেখানে শিশুরা খেলাধূলা করতে পারে।

প্রেসক্লাব অব মালদার সভাপতি ভাস্কর রায় বলেন, নানান কাজ কর্মের মধ্যে দিয়ে সময় বার করে এই দুঃস্থদের জন্য নতুন পোষাক দেওয়ার সামান্য একটা উদ্যোগ নিয়েছি আমরা। সংগঠনের প্রত্যেক সদস্য এগিয়ে এসেছেন এবং বিভিন্নভাবে সহায়তা করেছেন। পুরাতন মালদা থানার পুলিশ এই অনুষ্ঠান সফল করতে বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছে। আমরা চাই এই ভাবেই ভবিষ্যতে আরও বিভিন্ন ধরনের সামাজিক কাজকর্ম চালিয়ে যাবো।