বনধ ঘিরে রণক্ষেত্রে মালদার সুজাপুর,বিক্ষোভকারীদের হঠাতে লাঠিচার্জ ও কাঁদানে গ্যাস ছোঁড়ে পুলিশ

67

বিশ্বজিৎ মণ্ডল, মালদাঃ বনধ ঘিরে রণক্ষেত্রের চেহারা নিল মালদহের কালিয়াচক থানার সুজাপুর এলাকা। রাস্তা অবরোধ এবং গাড়ি ভাঙচুর ও গাড়িতে আগুন ধরিয়ে বিক্ষোভ দেখাল সমর্থকরা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কাঁদানে গ্যাস ছোঁড়ে পুলিশ। শূন্যে গুলি চালানো হয়। ধর্মঘটীদের হটাতে লাঠিচার্জও করে পুলিশ কর্মীরা। পালটা আক্রমণ হানে বন্‌ধ সমর্থকরা।

জানা গেছে, যে কোনও মূল্যে ১৪টি সংগঠনের ডাকা বন্‌ধ সফল করতে বুধবার সকাল থেকেই মরিয়া বাম কর্মী-সমর্থকরা। এরপর বেলা ১২ টা নাগাদ মালদহরে কালিয়াচকের সুজাপুরের ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে বাম ও কংগ্রেস সমর্থকরা। অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে এলাকা। পরিস্থিতি সামাল দিতে ঘটনাস্থলে যায় বিশাল পুলিশ বাহিনী। সেখানেই ধর্মঘট সমর্থকদের সঙ্গে ধস্তাধস্তিতে জড়িয়ে পড়ে পুলিশ। বিক্ষোভকারীদের হঠাতে লাঠিচার্জ করে পুলিশ। পালটা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটবৃষ্টি করা হয়। এরপরই কাঁদানে গ্যাস ছোঁড়ে পুলিশ। বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে শূন্যে গুলিও চালায়। একের পর এক আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয় পুলিশের গাড়িতে।  এই ঘটনায় বেশ কয়েকজন পুলিশ কর্মী আহত হয়েছে। প্রায় ৩-৪ ঘন্টার প্রচেষ্টায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।

 ঘটনার তীব্র নিন্দা করেন মালদহের তৃণমূলের জেলা সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন। তিনি বলেন, বন্‌ধকে কোনওভাবেই সমর্থন করা যায় না। বন্‌ধের ফলে সাধারণ মানুষকে প্রবল সমস্যায় পড়তে হয়। সেই সঙ্গে পুলিশকে আক্রমণ ও গাড়িতে আগুন জ্বালিয়ে দেওয়ার ঘটনার তীব্র বিরোধিতা করেন তিনি।