ফের দুষ্কৃতীদের বোমাবাজির ঘটনায় উত্তেজনা মালদায়

15

বিশ্বজিৎ মণ্ডল, মালদাঃ ফের বোমাবাজির ঘটনায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ল ইংরেজবাজার থানার সাদুল্লাপুর এলাকায়। দুষ্কৃতীদের তাণ্ডবে আতঙ্কিত গ্রামবাসীরা। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে বোমাবাজির প্রতিবাদে টায়ার পুড়িয়ে মালদা মোথাবাড়ি রাজ্য সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখায় স্থানীয় বাসিন্দারা। অবরোধের ফলে ব্যাপক যানজট সৃষ্টি হয় রাজ্য সড়কে। প্রায় ঘণ্টা খানেক অবরোধের পর ইংরেজবাজার থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করে।

এলাকাবাসীদের অভিযোগ, গত কয়েকদিন আগে পুরনো একটি ঘটনার কারণে একটি লুচির দোকানে বোমাবাজির ঘটনা ঘটেছিল। তখন অভিযোগ জানালেও পুলিশ কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি। অভিযোগ, ওই লুচির দোকানের মালিক পুলক সরকারের ছেলে অরিজিৎ সরকার বুধবার রাতে মোটর বাইক নিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন, সেই সময় বোমাবাজি শুরু করে দুষ্কৃতীরা। অল্পের জন্য রক্ষা পায় অরিজিৎ।

গ্রামবাসী বিভা রায় জানিয়েছেন,কে বা কারা বোমাবাজি করছে তা তারা বুঝতে পারেননি। তিনটি বাড়ির সামনে বোমাবাজি করে দুষ্কৃতীরা। স্বপন রায়, দিপু রায় এবং বচন রায়ের বাড়িতে বোমাবাজি করে দুস্কৃতিরা। তিনি বলেন, দিপু রায়ের জানালার সানসেটে একটি বোমা মারে দুষ্কৃতীরা। বোমা ফাটিয়ে তাদের সিড়ি ঘরের টিনের চাল ফুটো করে দেয় তারা। অন্যদিকে বচনের বাড়ি লক্ষ্য করেও একাধিক বোমা ফাটায় দুষ্কৃতীরা। এদিন সকালে তিনটি তাজা বোমাও ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে পুলিশ।

জানা গেছে, পুলক সরকারের ছেলে অরিজিৎ সরকার এবং স্থানীয় কয়েকজন দুষ্কৃতীর সঙ্গে তোলা চাওয়াকে কেন্দ্র করে বচসা হয়। অভিযোগ, দুষ্কৃতীরা অরিজিৎ এর কাছ থেকে ৫ হাজার টাকা দাবি করে। সেই টাকা  দিতে অস্বীকার করায় দুষ্কৃতীদের  সাথে বচসা বাধে এবং দুষ্কৃতীরা তাকে মারধরও করে বলে অভিযোগ। এই ঘটনায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয় তিনজনের নামে।

এলাকাবাসীর ধারনা সেই ঘটনা থেকেই হয়তো এই বাবাজির ঘটনা। তবে বোমাবাজির ঘটনায় আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি হয় সাদুল্লাপুর এলাকায়। দীর্ঘক্ষন রাজ্য সড়ক অবরোধ করে রাখে গ্রামবাসীরা।পরে ঘটনাস্থলে পৌঁছে তদন্তকারী পুলিশ অফিসারেরা দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিলে আন্দোলন থেকে সরে আসে গ্রামবাসীরা।

তদন্তকারী পুলিশ অফিসারদের এই বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তারা কোনো উত্তর দেইনি। ইংরেজবাজার থানার পুলিশ গ্রামবাসীদের সঙ্গে কথা বলে ঘটনাস্থল থেকে বোমার নমুনা সংগ্রহ করে দুষ্কৃতীদের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে।