মুর্শিদাবাদ ভেঙে দুটি পুলিশ জেলার ঘোষণা মমতার, ৫৮ জন আইপিএসের রদবদল

446

ওয়েব ডেস্ক, ১ জানুয়ারিঃ নতুন বছরে নতুন পুলিশ জেলা পাচ্ছে বাংলা। বছরের শেষ দিনে রাজ্য পুলিশের ব্যাপক রদবদল করে একথা ঘোষণা করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুর্শিদাবাদ জেলাকে ভেঙে দুটি পুলিশ জেলা করা হয়েছে। দুটি পুলিশ জেলা নিয়োগ করা হয়েছে দুজন পুলিশ সুপার। তাঁদের উপরে রাখা হয়েছে প্রাক্তন পুলিশ সুপারকে। বুধবার বছরের প্রথম দিন সবাইকে নতুন পদের দায়িত্ব নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। উল্লেখযোগ্য বদল কলকাতা পুলিশেও। এছাড়াও ক্রমাগত বাড়তে থাকা সাইবার অপরাধের জন্য সিআইডিতে তৈরি করা হল নতুন পদ ডিআইজি (সাইবার ক্রাইম)। সেই পদের দায়িত্ব পেলেন মিতেশ জৈন।

কলকাতা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার (সদর) পদে এলেন শুভঙ্কর সিনহা সরকার। তাঁর জায়গায় যুগ্ম কমিশনার (এসটিএফ)-এর দায়িত্ব নেবেন পূর্ব মেদিনীপুরের পুলিশ সুপার ভি সলোমন নিশাকুমার। কলকাতা পুলিশের প্রাক্তন গোয়েন্দা প্রধান এবং বর্তমানে আর্মড পুলিশের যুগ্ম কমিশনার প্রবীণ ত্রিপাঠী পেলেন ডিআইজি (প্রেসিডেন্সি) রেঞ্জের দায়িত্ব। বদল হল আইজি (দক্ষিণবঙ্গ) পদেও। সঞ্জয় সিংহের জায়গায় আইজি (দক্ষিণবঙ্গ)-র দায়িত্ব সামলাবেন রাজীব মিশ্র। তিনি ছিলেন আইজি (পশ্চিমাঞ্চল)। মুর্শিদাবাদ রেঞ্জের ডিআইজি বাস্তব বৈদ্য পদোন্নতি পেয়ে হলেন আইজি (সিআইডি)। আসানসোল-দুর্গাপুর পুলিশ কমিশনারেটের নতুন সিপি হয়েছেন সুকেশকুমার জৈন।

কলকাতা পুলিশের ডিসি ট্রাফিক এবং বিভিন্ন ডিভিশনেও পরিবর্তন করা হয়েছে। দেবেন্দ্রপ্রকাশ সিং কলকাতার অতিরিক্ত নগরপাল হলেন। ডিসি ট্রাফিক সন্তোষ পাণ্ডে পদোন্নতি পেয়ে হলেন যুগ্ম কমিশনার। তবে তিনিই থাকবেন কলকাতার ট্রাফিকের দায়িত্বে। তাঁর অধীনে ডিসি ট্রাফিকের দায়িত্ব পালন করবেন রূপেশ কুমার। তিনি কলকাতার পূর্ব ডিভিশনের দায়িত্বে ছিলেন। তাঁর জায়গায় দায়িত্ব নিচ্ছেন গৌরব লাল। কলকাতার দক্ষিণ-পূর্ব ডিভিশনের উপনগরপাল অজয় প্রসাদকে ইস্টার্ন সাবার্বান ডিভিশনের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। সেখানকার ডিসি দেবস্মিতা দাস দক্ষিণ-পূর্ব ডিভিশনে বদলি হলেন।

ডিসি নর্থের দায়িত্ব পাচ্ছেন কলকাতা পুলিশের ডিসি ওয়্যারলেস জয়িতা বোস। অখিলেশ চতুর্বেদী কলকাতার যুগ্ম পুলিশ কমিশনারের পদ থেকে সরে সশস্ত্র পুলিশের যুগ্ম নগরপালের দায়িত্ব নিচ্ছেন। শুভঙ্কর সিনহা সরকার এসটিএফ থেকে জয়েন্ট সিপি,সদর হলেন। কলকাতা সশস্ত্র পুলিশের ফার্স্ট ব্যাটেলিয়নের ডিসি বিশ্বজিৎ ঘোষ সাউথ ওয়েস্ট ডিভিশনের ডিসি হয়েছেন। গৌরব লাল এলেন ইস্ট ডিভিশনের দায়িত্বে।
অন্যদিকে, হরিকিশোর কুসুমাকার স্বরাষ্ট্র ও পার্বত্য বিষয়ক দপ্তরের সমন্বয়ে সচিবের দায়িত্ব সামলাবেন। বাস্তব বৈদ্য মুর্শিদাবাদ রেঞ্জের আইজি থেকে সিআইডিতে গেলেন।

মুর্শিদাবাদ পুলিশ জেলার সদর হবে বহরমপুর, জঙ্গিপুরের ক্ষেত্রে রঘুনাথগঞ্জ। মুর্শিদাবাদে থাকছে ২৩টি থানা। জঙ্গিপুর তুলনায় অনেক ছোট। সেখানে থাকছে জঙ্গিপুর মহকুমার মাত্র ছটি থানা। নবান্ন থেকে এ ব্যাপারে এদিনই বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে। মুর্শিদাবাদ জেলাকে দুটি পুলিশ জেলায় ভাগ করে নিয়োগ করা হল দু’জন পুলিশ সুপারকে। জঙ্গিপুর পুলিশ জেলার দায়িত্ব পেলেন অভিষেক গুপ্ত এবং মুর্শিদাবাদের দায়িত্ব পেলেন অজিত সিংহ যাদব। তবে তাঁদের উপরে থাকবেন মুকেশ কুমার। তিনি মুর্শিদাবাদ রেঞ্জের ডিআইজি হয়েছেন।

মুর্শিদাবাদ, জঙ্গিপুর, কৃষ্ণনগর, রানাঘাট থাকবে এর অধীনে। বারাসত রেঞ্জে বারাসত, বনগাঁ ও বসিরহাট পুলিশ জেলা থাকবে। বারাসতের নতুন এসপির নাম না জানানো পর্যন্ত এই দায়িত্বে থাকছেন সি সুধাকর। মুর্শিদাবাদ রেঞ্জে জঙ্গিপুর, মুর্শিদাবাদ পুলিশ জেলা ছাড়াও যুক্ত হচ্ছে রানাঘাট ও কৃষ্ণনগর। অন্যদিকে, মালদহ রেঞ্জে থাকবে মালদহ ও দক্ষিণ দিনাজপুর। এখানে ডিআইজির দায়িত্বে প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়। রায়গঞ্জ রেঞ্জে থাকছে ইসলামপুর ও রায়গঞ্জ পুলিশ জেলা। প্রেসিডেন্সি রেঞ্জে বারুইপুর, সুন্দরবন, ডায়মন্ডহারবার ও হাওড়া (গ্রামীণ) পুলিশ জেলা।