সরকারি চাকরিতে ৫ লক্ষ নিয়োগ, আরামবাগ থেকে বড় ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

0
56

খবরিয়া ২৪ নিউজ ডেস্ক, ১২ ফেব্রুয়ারি, আরামবাগ: সোমবার আরামবাগে প্রশাসনিক সভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিপুল নিয়োগের ঘোষণা করলেন। এদিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানালেন, রাজ্য সরকারি চাকরিতে প্রায় ৫ লক্ষ শূন্যপদ রয়েছে। সরকার ওই সব শূন্যপদ পূরণ করতে চায়। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, এই ৫ লক্ষের মধ্যে ১ লক্ষ শূন্যপদ রয়েছে শিক্ষকদের জন্য। এ ছাড়া পুলিশে নিয়োগ করা হবে ৬০ হাজার।

বাংলায় সরকারি চাকরিতে নিয়োগ প্রক্রিয়া থমকে যাওয়ার জন্য এদিন বিরোধীদের দায়ী করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। মমতার কথায়, “বিজেপি, সিপিএম এবং কংগ্রেসের জন্য নিয়োগ করা যাচ্ছে না। আদালতে গিয়ে নিয়োগ আটকে দিচ্ছে। আদালতে যেতে কারও বাধা নেই। কিন্তু ওরা আদালতে যাচ্ছে আর মামলা করে চাকরি আটকে দিচ্ছে। তারপর বলছে, কেমন আটকে দিলাম।’‌’

মমতার কথায়, “এটা একটা বড় দুর্নীতি। যারা মানুষের কাজ আটকায় সেটা বড় দুর্নীতি। চাকরি আটকাতে নেই, এটা মনে রাখবেন।” তিনি বলেন, ‘সারা বাংলাজুড়ে ৬টা ইকোনমিক করিডর। আর বাইরে যেতে হবে না। পরিযায়ী শ্রমিককে আর বাইরে যেতে হবে না।’ তাঁর আরও আশ্বাস, ‘বাকি কিছু নেই। যখন যেটা দরকার দিদিকে আবদার করবেন দিদি করে দেবে।”

মুখ্যমন্ত্রীর এদিনের ঘোষণা নিয়ে অবশ্য কটাক্ষ করতে ছাড়েননি সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী। তিনি বলেন, “বামেরা কোনও নিয়োগ প্রক্রিয়ায় বাধা দেয়নি। বাংলার ছেলেমেয়েদের যোগ্যতার নিরিখে সরকারি চাকরি পাওয়া তাদের অধিকারের মধ্যে পড়ে। কিন্তু শাসক দলের মন্ত্রী, নেতারা সেই চাকরি টাকার বিনিময়ে বিক্রি করেছেন। মন্ত্রীর বান্ধবীর বাড়ি থাকা কোটি কোটি টাকা নগদ বাজেয়াপ্ত হতে বাংলার মানুষই দেখেছে”। সুজনের কথায়, ভোট আসছে, তাই আবার মুখ্যমন্ত্রী গাজর দেখাতে শুরু করেছেন। এই ফাঁপা ঘোষণা কেউ বিশ্বাস করবে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here