দীপাবলির উৎসবের সুচনা করে সংহতির বার্তা দিলেন মমতা

45

কোলকাতা ২৫ অক্টোবরঃ দীপাবলির উৎসবে উদ্বোধন শুরু করলেন মুখ্যমন্ত্রী। আলোর উৎসব দীপাবলী।এই উৎসবকে সামনে রেখে এই বঙ্গের স্কতির আরধ্না হয়ে থাকে। অমাবস্যার তিথি মেনে হয় কালী পূজা। অন্ধকার থেকে আলোয় ফেরার এই উৎসবই হল দীপান্বিতা।দ্বীপের প্রদীপ জ্বালিয়ে শুক্রবার কোলকাতায় একাধিক পূজার সুচনা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৃহস্পতিবার থেকেই তিনি পুজোর উদ্বোধন শুরু করে দিয়েছেন। সে সময় তিনি উত্তরবঙ্গে ছিলেন।  শিলিগুড়িতে পুজো মণ্ডপের উদ্বোধন করেছেন সেদিন। কলকাতায় ফিরে শুক্রবার শহরের উত্তর থেকে দক্ষিণ, একাধিক পুজো মণ্ডপের উদ্বোধন করেছেন তিনি।

গিরিশ পার্কের ফাইভ স্টার স্পোর্টিং ক্লাবের পুজো দিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর এ শহরের পুজোর উদ্বোধন শুরু করলেন। এরপর একে একে জানবাজার সম্মিলিত, শেক্সপিয়র সরণীর ইয়ুথ ফ্রেন্ডের কালীপুজো, কালীঘাটের ৬৪ হরিশ মুখার্জি রোডের ভেনাস ক্লাবের পুজোর উদ্বোধন করেন মমতা। সর্বত্রই সম্প্রীতির বার্তা দেন তিনি।

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘এখানে দুর্গাপুজো হয়, নবরাত্রিও হয়। ইদ পালিত হয়, আবার বড়দিনও পালন হয়। ছটপুজো ২ নভেম্বর। সেদিন শনিবার। সকলে তার পরদিন সূর্য প্রণাম করতে যান। সেদিন আবার রবিবার পড়েছে। তাই আমি ৪ তারিখ, সোমবার ছটের ছুটি দিয়েছি। সকলের মিলেমিশে থাকা, আনন্দ-দুঃখ ভাগ করে নেওয়াটাই বাংলার ঐতিহ্য। সবকিছুতেই আমরা আছি। সবেতেই আমরা থাকতে ভালবাসি।

একাধিক স্থানের দীপাবলী উৎসবের সুচনা করেন মমতা আরও বলেন, ‘‘আমাদের এক হাতে গীতাঞ্জলী, অন্য হাতে অগ্নিবীণা। আমরা এভাবেই চলি। আমরা জানি সব ঝড় থেমে যাবে, সব দুর্যোগ কেটে যাবে। বিশ্ব মানবতার জয় হবে। সভ্যতা, একতার জয় হবে।’’