জলমগ্ন এলাকা, বন্যা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে গেলেন মন্ত্রী গোলাম রব্বানী

6

বিশ্বজিৎ মণ্ডল, মালদা: জল যন্ত্রনার স্বীকার মালদার একাধিক ব্লকের বহু পরিবার। সবত্রই ত্রাণ নিয়ে হাহাকার। বাড়ি ঘর ছেড়ে হাজার হাজার পরিবার আশ্রয় নিয়েছে উঁচু স্থানে। এমতো অবস্থায় প্রশাসনের কর্তাদের নিয়ে বন্যা এলাকা পরিদর্শন করলেন মন্ত্রী গোলাম রব্বানী। টানা বৃষ্টিপাতের ফলে গঙ্গা ফুলাহারের জলস্তর লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে।

প্লাবিত হয়েছে জেলার মানিকচক, রতুয়া ১ ব্লকের বিস্তীর্ণ এলাকা জলে প্লাবিত। প্রশাসনের তরফে জানানো হচ্ছে জেলায় প্রায় ত্রিশ হাজার পরিবার জলমগ্ন। যদিও বেসরকারি সূত্রে বানভাষী পরিবারের সংখ্যা আরো অধিক। ত্রাণ সামগ্রী পর্যাপ্ত পাচ্ছেনা বানভাষীরা এমনটাই অভিযোগ করেছেন।

এদিন মালদা জেলার বন্যা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে আসেন মন্ত্রী গোলাম রব্বানী। তার সঙ্গে ছিলেন, জেলা পরিষদের সভাধিপতি গৌর চন্দ্র মন্ডল, জেলাশাসক কৌশিক ভট্টাচার্য, রাজ্য মহিলা কমিশনের ভাইস চেয়ারপার্সন মৌসম নূর সহ জেলা প্রশাসনের কর্তারা। এদিন প্রথমে মানিকচক ব্লকের বন্যা এলাকা পরিদর্শন করেন মন্ত্রী। গোপালপুর ও মানিকচক অঞ্চলের গঙ্গার জলে প্লাবিত এলাকা ঘুরে দেখেন তিনি। কথা বলেন বানভাষীদের সাথে।

এ প্রসঙ্গে মন্ত্রী গোলাম রব্বানী বলেন,জেলাশাসককে সমস্ত নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বন্যা দুর্গতদের স্থানীয় বিদ্যালয় গুলিতে এরই দেওয়া হচ্ছে। ট্রেন সামগ্রী সকলেই পাচ্ছে। বাকি স্থানীয় প্রশাসনের কর্তাদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে আসল বন্যা দুর্গত পরিবার গুলিকে চিহ্নিত করে নিরাপদ জায়গায় আশ্রয় দেওয়ার। মেডিক্যাল দল এলাকা গুলিতে রয়েছে। শুকনো খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হচ্ছে। সাথে রান্না করা খাবারের ব্যবস্থাও করা হয়েছে। সরকার সবরকম সহযোগিতা করবে সকল দুর্গত পরিবার গুলিকে।