সূর্যগ্রহণ দেখতে না পেয়ে হতাশ হয়ে টুইট মোদীর

257

ওয়েব ডেস্ক, ২৬ ডিসেম্বরঃ দশকের শেষ বলয়গ্রাস সূর্যগ্রহণকে ঘিরে গত কয়েকদিন ধরেই সাধারন মানুষের উৎসাহ ছিল তুঙ্গে। এমনকী এই দৃশ্য দেখতে অধীর অপেক্ষায় ছিলেন দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও। তবে বৃহস্পতিবার ভারত থেকে আংশিক হলেও বছরের শেষ সূর্যগ্রহণ দেখা যাবে বলে উদগ্রীব ছিলেন কয়েক কোটি ভারতবাসী। বিরল প্রাকৃতিক দৃশ্যের সাক্ষী থাকতে তৈরি ছিলেন মোদীও। কিন্তু প্রকৃতিরই রসিকতায় শেষ পর্যন্ত সেই অভিজ্ঞতা তাঁর অধরাই থেকে গেল।

সকাল থেকে মানসিক প্রস্তুতি ছিলই। প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনের লনে যথাসময়ে সূর্যগ্রহণ দেখতে চোখে কালোচশমা পরে উপস্থিত হয়েছিলেন মোদী। কিন্তু বাধ সাধল মেঘলা আকাশ। গ্রহণ দূর অস্ত্, সূর্যের চিহ্নমাত্র চোখে পড়ে না এমন আবহে বেশ কিছু ক্ষণ অপেক্ষা করেও হতাশ হতে হল দেশনেতাকে।

সূর্যগ্রহণ দেখতে না পেয়ে হতাশ হয়েছেন মোদী। তবে লাইভ স্ট্রিমিংয়ে সূর্যগ্রহণ দেখার অভিজ্ঞতা নিয়ে পোস্ট করেছেন নিজের ট্যুইটার অ্যাকাউন্টে। তিনি লিখেছেন, “দুর্ভাগ্যবশত, মেঘের আচ্ছন্নতার কারণে আমি সূর্য দেখতে পেলাম না, তবে লাইভ স্ট্রিমের সাহায্যে আমি কোজিকোড় এবং অন্যান্য অংশের গ্রহণের ঝলক দেখতে পেয়েছি। বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে কথোপকথনের মাধ্যমে বিষয়টি সম্পর্কে আমার জ্ঞানকে আরও সমৃদ্ধ করেছি।”

সূর্যগ্রহণটি সকাল ৮ টা বেজে ২০ মিনিট ৮ সেকেন্ডে শুরু হবে এবং চলবে ১১ টা বেজে ২৯ মিনিট ১০ সেকেন্ড পর্যন্ত। আগামী ২৬ ডিসেম্বর সূর্য গ্রহণ। আর এই সূর্যগ্রহণের সময় সূর্যের পাশেই দেখা যাবে আগুনের বৃত্তকে। ইতিমধ্যেই মহাকাশ বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, আড়াই থেকে তিন ঘণ্টা ধরে চলবে এই মহা জাগতিক দৃশ্য। এই দৃশ্য দেখা যাবে ভারতেও৷ পশ্চিমবঙ্গের দার্জিলিং, কোচবিহারে দেখা যাবে সূর্যগ্রহণ৷

জানা গিয়েছে, গ্রহণ চলাকালীন সূর্যকে প্রায় ৯০ শতাংশ ঢেকে ফেলবে চাঁদ। গ্রহণের ওই দৃশ্য সারা পৃথিবীর মানুষই অবলোকন করতে পারবেন। পূর্ণ সূর্য গ্রহণের সময় সকাল ১০টা ২৮ মিনিট ৯ সেকেন্ড। ওই সময়ই চাঁদের আড়ালে চলে যাবে মহাশক্তিধর সূর্য দেব।

ওই সময় সূর্যকে একটি অগ্নি বলয়ের মতো দেখাবে পৃথিবীর মানুষের সামনে। দুপুর ১২ টা ৮ মিনিট ২৫ সেকেন্ড পর্যন্ত চলবে এই সূর্য গ্রহণ। জানা গিয়েছে, ১৭২ বছর আগে শেষবার পৃথিবীর মানুষের সামনে দেখা মিলেছিল এই অগ্নি বলয়ের। এবারের এই অগ্নি বলয়ের দৃশ্যটি মধ্যপ্রাচ্যের দেশ আরব আমিরশাহি থেকে সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে।