পুকুর ভরাট করে বাড়ি নির্মাণের বিরুদ্ধে আন্দোলন কোলাঘাট বাজারে

10

প্রসেনজিৎ রায়, পূর্ব মেদিনীপুরঃ কোলাঘাটে পুকুর ভরাট করে নির্মাণ কজের অভিযোগে হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা, তার সাথে এলাকার মানুষজনের উদ‍্যোগে গত ২২শে ফেব্রুয়ারি বিকালে কোলাঘাট বাড়বড়িশা গ্রামে গনকনভেনশন ও বিক্ষোভ মিছিল সংগঠিত হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, কোলাঘাটে বাড়বড়িশা মৌজায় ৬১০ নম্বর দাগে প্রায় দশবিঘা জমির উপর ‘কলপুকুর’ নামে পরিচিত একটি বড় মাপের জলাশয় আছে। প্রায় শতবর্ষ প্রাচীন এই পুকুরে ওই গ্রামের পূর্ব দাসপাড়া, বাগান বাড়ি, কাচারীপাড়া, রুপনারায়ন পল্লী ও নতুন বাজার হাট এলাকার প্রায় শতাধিক পরিবার এই পুকুরটি নিয়মিত ব‍্যবহার করেন। অভিযোগ, এই পুকুর পাড়ের বাসিন্দা এই পুকুরের মালিকপক্ষ নিজে বেশকিছু অংশ তিলতিল করে ভরাট করে এবং এক প্রমোটারকে পুকুরের বাকি অংশ বিক্রি করে বহুতল নির্মাণে নির্মাণকার্য শুরু করেছেন। এলাকার মানুষজন প্রথমে এই বহুল ব‍্যবহৃত পুকুরটি না বোঝানোর আবেদন করেন। মালিকপক্ষ কর্ণপাত না করে নির্মাণকাজ চালিয়ে যান। এরপর জলাশয় রক্ষায় এলাকার মানুষ দলবদ্ধভাবে বিএলআরও, গ্রাম পঞ্চায়েত ও সমিতি, বিডিও, থানা, জেলা শাসক, পরিবেশ দপ্তরে মাসপিটিশন জমা দেন। হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করা হয়, এরই প্রতিবাদে এদিন গনকনভেনশন ও ধিক্কার মিছিল সংগঠিত হয়। এই বিক্ষোভে যোগ দিয়েছিলেন এলাকার ব‍্যবসায়ী, চাকরিজীবি, শিক্ষক, ডাক্তার, অধ্যাপক থেকে ছাত্রছাত্রী। এমনকি বাড়ির মেয়েরাও অংশ নেন।

এলাকাবাসীর পক্ষে শ‍্যামাপ্রসাদ মুখার্জী, প্রবির সাঁই, বিশ্বজিৎ চক্রবর্তী, রূপেশ জৈনরা বলেন, ‘শতাব্দী প্রাচীন বহুল ব‍্যবহৃত এই জলাশয়টি এই এলাকার একমাত্র পরিবেশ সম্পদ। সেটা ভরাট করে বহুতল নির্মাণের কাজ আমরা সবরকমভাবে বাঁধা দেওয়ার চেষ্টা করব। এই বিষয়ে আমরা প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করছি।’