নিজস্ব সংবাদদাতা, বালুরঘাটঃ  পরিযায়ী শ্রমিকদের কোয়ারাইন্টাইনে থাকার সময় কেন্দ্রের তরফে  খাদ্য বাবদ পাঠানো  বরাদ্দের টাকা খরচের  হিসেবের শ্বেতপত প্রকাশ করার দাবি জানালো বালুরঘাটের বিজেপি দলের সাংসদ সুকান্ত মজুমদার। বৃহষ্পতিবার দক্ষিন দিনাজপুর জেলা শাসককের নিকট  বালুরঘাটের সাংসদ একটি চিঠি লিখে  এই দাবি জানান। জেলা শাসক নিখিল নির্মলের কাছে এই লেখা চিঠিতে  প্রতি ছত্রে ছত্রে কোভিড ১৯ সক্রমন ছড়িয়ে পড়া রুখতে কেন্দ্রের তরফে পাঠানো বরাদ্দের টাকা সঠিক কাজে ব্যবহৃত হচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছেন সাংসদ।

বিজেপি নেতা তথা বালুরঘাটের সাংসদ সুকান্ত মজুমদারের অভিযোগ,  সম্প্রতি জেলায় ফিরে আসা পরিযায়ী মানুষজন ও অনান্য মানুষজন কোভিড পজিটিভে আক্রান্ত হয়ে জেলার বিভিন্ন কোয়ারাইন্টাইন সেন্টারে গিয়েছেন। তারা সেই সব সেন্টারে নিম্ন মানের  খাবার দেবার অভিযোগ জানাচ্ছেন সংবাদ মধ্যমে। অথচ কেন্দ্র কোয়ারাইন্টানে থাকা ব্যাক্তিদের  খাবার ও পানীয় জল বাবদ ১৫০ টাকা করে বরাদ্দ করে পাঠিয়েছে। সাংসদের অভিযোগ কেন্দ্রের এই বিপুল পরিমান বরাদ্দ আসা সত্বেও কেন কোয়ারাইন্টাইনে থাকা কোভিড আক্রান্তরা নিম্নমানের খাবার পাবেন। এরপরেই সাংসদ কেন্দ্রের পাঠানো এই বাবদ টাকার অর্থ কবে কোন খাতে কতজন কোভিড ১৯ আক্রান্তের জন্য খরচ করা হয়েছে জেলা শাসকের কাছে তার হিসেব চেয়ে  শ্বেতপত্র প্রকাশের দাবি জানান।

এই চিঠিতে সসংসদ শ্বেতপত্র প্রকাশের দাবির পাধাপাশি জেলায় ক্রমশই কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে জেলা শাসককে লিখেছেন আপনি জেলায় কোভিড সক্রমন ছড়িয়ে পড়া রোখার লড়াইয়ে প্রথমে থেকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন। তবু কেন জেলায় এই সক্রমন মাথা চাড়া দিয়ে উঠছে। তাই এই নিয়ে নতুন করে পরিকল্পনা করে   এই সক্রমন ছড়িয়ে পড়া রোধ করবার লড়াইয়ে নামার পরামর্শ ও সাংসদ তার চিঠিতে জেলা শাসককে জানিয়েছেন। যদিও জেলা শাসককের অফিসের তরফে এই চিঠির  প্রাপ্তি র কথা স্বিকার করা হলেও এব্যাপারে কোন মন্তব্য কেউ করতে নারাজ।