নারদ কাণ্ডে নয়া মোর গ্রেফতার হতে পারে শোভন,জোর জল্পনা

638

ওয়েব ডেস্ক, ৯ অক্টোবরঃ শারদ উৎসব শেষে কালবৈশাখী ঝড়ে বিপযর্স্ত হতে চলেছে শোভনের ভাগ্য। তিনি নারদাকান্ডে বেশ কিছু টাকা নিয়েছেন বলে সিবিআইকে জানিয়েছেন নারদ কর্তা ম্যাথু স্যামুয়েল। তাই নারদকান্ডের তদন্তে  এবার গ্রেফতার করা হতে পারে কলকাতা কর্পোরেশনের প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায় বলে জোর জল্পনা চলছে গোটা বাংলাজুড়ে।

প্রসঙ্গত,পূজার মুখে নারদ কান্ডের তদন্তে গতি আনতে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা হঠাৎই তলব করে নারদকর্তা ম্যাথু স্যামুয়েলকে। ইতিমধ্যেই বর্ধমানের প্রাক্তন এসপি মির্জাকে ইতিমধ্যেই গ্রেফতার করেছে গোয়েন্দা সংস্থা। এই বিষয়ে নারদ কর্তাকে প্রশ্ন করলে তিনি উত্তর বলেন, নারদ কাণ্ডে আইপিএস অফিসার মির্জা ঘুষ নিলেও, সরাসরি তিনি সেই টাকা হাতে নেননি। তিনি বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের হাত মারফত সেই টাকা নিয়েছিলেন এমনটাই গোয়েন্দা সংস্থার কাছে দাবী করেছিলেন ম্যাথু। পাশাপাশি তিনি আরও দাবী করেন, ওই আইপিএস অফিসার  টাকা নেওয়ার সময়ে বিজেপি নেতা  মুকুল রায়ের মোবাইল টাওয়ার লোকেশনও ওই এলাকাতেই ছিল বলে জানিয়েছেন তিনি।

যদি মুকুল সরাসরি টাকা না নেয় তবে সেই টাকা কলকাতার প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায় ঘুষ নিয়েছেন বলে সরাসরি সিবিআইকে জানিয়েছেন নারদ কর্তা । ঘুষ নেওয়ার অপরাধে তাকে গ্রেফতারির দাবিও তোলেন তিনি।

রাজ্য রাজনীতিতে শোভন চট্টোপাধ্যায় এক পরিচিত মুখ, এক সময়ের তৃণমূলের  এই হেভিওয়েট নেতা কলকাতা কর্পোরেশনের মেয়র ছিলেন। তার আগে ছিলেন এই কর্পোরেশনের কাউন্সিলার। ‘জল শোভন’ নামেও তিনি পরিচিত ছিলেন। বেশ কিছু দিন থেকেই তার বিরুদ্ধে নানান অভিযোগ উঠছিল তার বন্ধবী বৈশাখী চট্টোপাধ্যায়ের সাথে ঘনিষ্টতা নিয়ে পরিবারের মধ্যেও নানা অশান্তি দেখা দেয়। দলের সাথেও তার দূরত্ব বাড়ে। 

লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি ভালো ফল করার পর শোভন বৈশাখীকে নিয়ে বিজেপিতে যোগ দেন, কিন্তু সেখানেও তিনি স্বস্তিতে পারেন, পরে অবশ্য তৃণমূলের সাথে ঘনিষ্টতা বাড়ানোর চেষ্টা করেন তিনি।