নিশীথ প্রামানিক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী, শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তৃণমূলের

1178

ওয়েব ডেস্ক, ৭ জুলাইঃ কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হলেন কোচবিহারের তৃণমূল ছেড়ে যাওয়া বিজেপির সাংসদ নিশীথ প্রামাণিক। বিগত দিনে কোচবিহার দিনহাটার প্রভাবশালি তৃণমূল যুব নেতা ছিলেন তিনি। ২০১৯ এর লোকসভা নির্বাচনের আগে ঘাসফুল শিবির বদল করে গেরুয়া শিবিরে ভিড়ে গিয়েছিলেন। এরপর কোচবিহার আসন থেকে বিজেপির টিকিটে জিতে যান। তবে রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, তৃণমূলে থাকাকালীনও তাঁর শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে নানা প্রশ্ন উঠত। তৎকালীন উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ তাকে গরু চোর বলেও আক্ষ্যাইত করেছিলেন। একুশের বিধানসভা নির্বাচন পর্বেও এই ইস্যুতে বার বার তাঁকে অস্বস্তিতে ফেলার চেষ্টা করেছিলেন তৃণমূল নেতৃত্ব। তা সত্ত্বেও তিনি জিতে যান। এবার একেবারে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। কিন্তু ফের সেই শিক্ষাগত যোগ্যতার বিষয়টিকে সামনে এনে খোঁচা দেওয়া শুরু করলেন তৃণমূল নেতৃত্ব। কোচবিহারের প্রাক্তন তৃণমূল সাংসদ তথা জেলা তৃণমূলের সভাপতি পার্থ প্রতীম রায় বুধবার তাঁর ফেসবুকের পাতায় দুটি আলাদা নথিকে হাজির করেন।

পার্থপ্রতীম রায় লিখেছেন, ‘শুনলাম কোচবিহারের সাংসদ মন্ত্রী হচ্ছেন। বেশ ভালো কথা। কিন্তু লোকসভার সাইট খুঁজতে গিয়ে চক্ষু চড়কগাছ। ওয়েবসাইটে সাংসদ মহাশয়ের শিক্ষাগত যোগ্যতা দেখাচ্ছে। কিন্তু ভোটে দাঁড়ানোর সময় হলফনামায় লেখা সর্বোচ্চ শিক্ষাগত যোগ্যতা মাধ্যমিক। আমি না বিষয়টি বুঝতে পারলাম না। কেউ কি বোঝাবেন নাকি সাংসদ মহাশয় নিজেই বিষয়টি খোলসা করবেন। সামাজিক মাধ্যমেই  কোচবিহারের মানুষের কাছে প্রশ্ন রাখলাম।’ এভাবেই সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রশ্ন তুলেছেন তিনি। পাশাপাশি সাংসদের পেশা নিয়েও নানা প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছেন শাসকদলের নেতৃত্ব। তবে এ প্রসঙ্গে বিজেপির তরফে কোনও প্রতিক্রিয়া এব্যাপারে পাওয়া যায়নি।