‘কাশ্মীরে কোনও বাঙালির মৃত্যু হয়নি’ দিলীপের এই মন্তব্য নিন্দার ঝড় রাজনৈতিক মহলে

567

ওয়েব ডেস্ক, ৩১ অক্টোবরঃ কাশ্মীরে সন্ত্রাসবাদীদের হাতে নৃশংসভাবে খুন হওয়া ৫ শ্রমিকের পরিবার পিছু ৫ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ওই ঘটনাকে দুর্ভাগ্যজনক বলে বর্ণনা করে কড়া তদন্তের দাবিও তুলেছেন তিনি। বৃহস্পতিবার সকালেই কুলগাম থেকে কফিনবন্দি হয়ে ফিরেছে পাঁচ শ্রমিকের নিথর দেহ। কাশ্মীরে এই হত্যালীলায় যখন ক্ষোভে ফুসছে দেশ, তখনই রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষের একটি মন্তব্য বিতর্কে ঘৃতাহুতি দিয়েছে।

বুধবার খড়গপুরে দাঁড়িয়ে ঘটনার নিন্দা জানাতে গিয়ে বলেন,কাশ্মীরে কোনও বাঙালির মৃত্যু হয়নি। আর তাতেই নিন্দার ঝড় ওঠে রাজনৈতিক মহলে। সোশ্যাল মিডিয়াতেও ক্ষোভ প্রকাশ করেন নেটিজেনরা। বিতর্কে পড়ে মন্তব্যের সাফাই গাইলেন দিলীপ ঘোষ। কী বললেন বঙ্গ বিজেপির সভাপতি? তিনি বলেন,‘পশ্চিমবঙ্গের মুসলমান কাশ্মীরে মারা গেলে সে বাঙালি, কিন্তু রাজস্থান বা গুজরাটে মারা গেলে সে মুসলমান। কেরালায় মারা গেলে সে বাঙালিও না মুসলমানও নয়। বাংলার মিডিয়া এবং তথাকথিত সেকুলার রাজনৈতিক দলগুলি কার স্বার্থে এই ধরণের বিভ্রান্তিমূলক প্রচার চালাচ্ছে?’

প্রসঙ্গত,বুধবার এক সাংবাদিকের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন,‘কাশ্মীরে কোনও বাঙালি মারা যায়নি। যাঁরা মারা গিয়েছেন তাঁরা শ্রমিক। ওখানে আরও অনেকে মারা গিয়েছে। পাকিস্তানের মদতে সেখানে উগ্রপন্থা চলছে। আমাদের সেনা ও সরকার কাজ করছে। আশা করি দ্রুত সমস্যার সমাধান হবে।’ কিন্তু দিলীপ ঘোষের মন্তব্যে বিতর্কের সৃষ্টি হয়। এর তীব্র নিন্দা করে তৃণমূল ও কংগ্রেস। সোশ্যাল মিডিয়াতেও সমালোচনা হয় প্রচুর।

বিতর্কে জল ঢালতে দিলীপ ঘোষ পালটা বলেন, ‘মুসলমান ছেলেদের প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে মজুরের কাজ করতে পশ্চিমবঙ্গের বাইরে কেন যেতে হচ্ছে? এর জন্য মুখ্যমন্ত্রী দায়ী।’ তাঁর মন্তব্যকে বিকৃতভাবে পেশ করার জন্য সংবাদমাধ্যমকে তুলোধোনা করেন দিলীপ ঘোষ। যদিও তাঁর মন্তব্যের জেরে বিতর্ক থামছে না।