মতাদর্শের পার্থক্য থাকলে কেউ কারো শত্রু হয়ে ওঠেনাঃ জগদীশ ধনকর

66

বীরভূম, ৬ ফেব্রুয়ারিঃ রাজ্যের বাজেট বক্তৃতার আগে সংঘাত নয় অনেকটাই সংহতির পথে হাটতে চাইছে রাজ্য সরকার। কিন্তু রাজ্যপাল ঠিক কি চাইছেন তা এখনও বুঝে ওঠা শক্ত।রাজ্যপালের ইঙ্গিতে স্পষ্ট রাজ্য সরকারের লিখিত ভাষণ বাদেও তিনি নিজের কথাও বিধানসভায় পেশ করতে চান। তাই রাজ্যের বাজেট বক্তৃতা নিয়ে ফের শঙ্কার পরিবেশ তৈরি হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিশ্বভারতীতে নিকেতন মেলা উদ্বোধন আসেন রাজ্যপাল জাগদীপ ধনকার। তিনি এখানে অবশ্য ফের বেসুরই গাইলেন। রাজ্যপাল বলেন, কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে সারা ভারতে ৪৩ কোটি কৃষকদেরকে আর্থিক সাহায্য করা হচ্ছে। কিন্তু পশ্চিমবঙ্গের ৭০ লক্ষ কৃষক সেই সাহায্য থেকে বঞ্চিত রয়েছে। তার জন্য তিনি প্রচণ্ড দুঃখিত বলেও মন্তব্য করেন।

পাশাপাশি বিধানসভায় আগামীকাল তিনি ভাষণ পেশ করবেন।এপ্রসঙ্গে তিনি বলেন, রাজ্য সরকারের অধিকার আছে ভাষণ তৈরি করে দেওয়ার জন্য, তেমনি তার ও সাংবিধানিক অধিকার রয়েছে নিজের মতন বক্তব্য পেশ করার।

তিনি কি বক্তব্য রাখবেন তা সাংবাদিকদের না জানালেও তিনি যে নিজের ভাষণ বিধানসভায় পেশ করতে চলেছেন সেই বিষয়ে স্পষ্ট ইঙ্গিত দেন। তাঁর সাথে বিশ্বভারতীতে সিআইএসএফ মোতায়েন ও সাম্প্রতিক যে ঘটনা সে সম্পর্কে বলেন মতাদর্শের পার্থক্য থাকলে কেউ কারো শত্রু হয়ে ওঠেনা। বিরোধিতা করা আলাদা কিন্তু তা নিয়ে অশান্তি করা ঠিক নয়। পাশাপাশি বিশ্বভারতীর নিরাপত্তার জন্য কার্যত সিআইএসএফ প্রয়োজন বলেই জানান তিনি।