চক্রান্ত করে রোমে যেতে দেওয়া হয়নি: মমতা

58

ওয়েব ডেস্ক, ২৫ সেপ্টেম্বরঃ রোমের শান্তি সম্মেলনে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। তবে সেই সফরে অনুমতি দেয়নি কেন্দ্রীয় সরকার। বিদেশ মন্ত্রকের এক যুগ্মসচিব চিঠি দিয়ে জানিয়েছেন, যে কর্মসূচিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে, বিদেশমন্ত্রক মনে করে সেই পর্যায়ের কর্মসূচি এক মুখ্যমন্ত্রীর মর্যাদার সমতুল্য নয়। এবার তা নিয়েই ভবানীপুরের ভোটপ্রচার থেকে বিজেপির বিরুদ্ধে আক্রমণ শানালেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘হিংসায় জ্বলছে। মুখেই শুধু হিন্দু হিন্দু করে বিজেপি। ওখানে তো ইমাম, পোপও আমন্ত্রিত ছিলেন। আমাকে যেতে দিল না। মনে রাখবেন, আমাকে এভাবে আটকানো যাবে না।’ তিনি আরও বলেন, ‘রোমে বিশ্ব শান্তি নিয়ে মিটিং ছিল। কত লোক যাবে। পোপ যাবে, জার্মানির লোক যাবে। আজ কেন্দ্র থেকে চিঠি এল। বলল মুখ্যমন্ত্রীর পক্ষে যাওয়া ঠিক না। শুধু তোমরা এদিক-ওদিক ঘুরে বেড়াবে? আমরা কোথাও যেতে পারব না।” মুখ্যমন্ত্রীর প্রশ্ন, ‘আমায় কেন যেতে দিলেন না? শান্তির কথা এলেই কেন এরকম করেন? এভাবে চলবে না। যেতে দিলে কিছু হত না। কিন্তু না যেতে দিয়ে খুব বেআইনি কাজ করলেন।’

এদিনের সভা থেকে অসম-উত্তরপ্রদেশ-ত্রিপুরার হিংসা নিয়েও সরব হন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মানবাধিকার কমিশনের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘অসমে যা হল তা অমানবিক। মানবাধিকার কমিশন কোথায়? এখানে তো কিছু হলেই চলে আসে। আর ওখানে গুলি চালিয়ে মেরে বুকের উপর উঠে নাচে। এখন কোথায় কমিশন?’

বিজেপিকে আক্রমণ করে তিনি বলেন, ‘এনআরসি করতে গিয়ে কত লোককে মারল। আমি এখানে সেটা করতে দেব না। অসমে আমি লোক পাঠিয়েছিলাম। ঢুকতে দিল না। হাথরসে দলিত মেয়ের উপর অত্যাচার হল। লোক পাঠালাম ঢুকতে দিল না। দিল্লিতে কত দাঙ্গা হল। কমিশন কোথায় ছিল?’ একই সঙ্গে কংগ্রেসের বিরুদ্ধেও সরব হন তৃনমূল সুপ্রিমো।