এনআরসি আতঙ্কে মৃত্যুর অভিযোগ, মৃতের বাড়িতে এসে সহযোগিতার আশ্বাস বিধায়কের

578

কাজল রায়, মাথাভাঙ্গা: এক গৃহকর্তার অস্বভাবিক মৃত্যুর ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। গত বুধবার রাতে মাথাভাঙার ১ নং ব্লকের বৈরাগীরহাট গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার অশোক বাড়ি গ্রামের বাসিন্দা অনিল সরকারের অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়। জানা গেছে, ৫৯ বছরের ওই ব্যক্তি বিষপান করে আত্মহত্যা করেন। তার পরিবারের দাবি, তিনি কিছুদিন থেকে এনআরসির আতঙ্কে মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন। তারই ফলে গত বুধবার রাতে বিষ পান করে আত্মহত্যা করেন। বিষ পানের পর অসুস্থ অবস্থায় তাকে মাথাভাঙ্গা মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে এলে চিকিৎসকরা  তাকে মৃত বলে ঘোষণা করে।

এই খবর প্রকাশিত হওয়ার পর  শুক্রবার সকালে শীতলখুচি কেন্দ্রের বিধায়ক তথা তৃণমূল নেতা হিতেন বর্মন মৃত অনিল সরকারের বাড়িতে যান। তার পরিবারের সাথে কথা বলেন এবং সমবেদনা জানান। ব্যক্তিগতভাবে মৃত অনিল সরকারের একমাত্র পুত্র অপরাজিত সরকারের হাতে কিছু আর্থিক সাহায্য তুলে দেন তিনি। বিধায়ক ছাড়াও সঙ্গে ছিলেন বৈরাগীরহাট গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান শম্পা রায় চৌধুরী, তৃণমূল নেতা ওমর রায় সুলতান মিয়া প্রমুখ।

মৃতের বাড়িতে দাঁড়িয়ে বিধায়ক হিতেন বর্মণ বলেন অনিল সরকারের মৃত্যু খুবই দুঃখজনক তার পরিবারের কাছে শুনেছি তিনি কিছু কাগজপত্র নিয়ে বেশ কয়েকদিন যাবত ঘোরাফেরা করছিলেন তিনি এনআরসি আতঙ্কে গত বুধবার মারা গেছেন। সরকারিভাবে তাকে কিছু সাহায্য প্রদান করা যায় কিনা সেটাও তিনি চেষ্টা করবেন বলে জানিয়েছেন।