এনআরসি আতঙ্ক কোচবিহারে, রেশন কার্ড সংশোধনের লাইনে দাড়িয়ে অসুস্থ কয়েকজন

18

কোচবিহার, ২৭ সেপ্টেম্বরঃ অসম বাংলা সীমান্তের কোচবিহার জেলার নাগরিকদের যেন তাড়া করে বেড়াচ্ছে এনআরসি আতঙ্ক। আতঙ্ক এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে তাতে রাজ্যের খাদ্য ও সরবরাহ দপ্তরের রেশন কার্ড সংশোধনী প্রক্রিয়া এবং প্রশাসনের ভোটার কার্ড যাচাইয়ের কাছে উপচে পড়ছে মানুষের ভিড়। নাগরিকদের একটা বড় অংশের বিশ্বাস, এই প্রক্রিয়াই এনআরসির প্রথম ধাপ। বিভিন্ন ব্লক কার্যালয় গুলিতে থিকথিক করছে সাধারন মানুষ। প্রথম পর্বে ঘোষণা ছিল বৃহস্পতিবার রেশন কার্ড সংশোধনের শেষ দিন। এর ফলে কোচবিহারের ব্লক কার্যালয় গুলিতে এইদিন মানুষে মানুষে ছিল ছয়লাফ। আর এই ভিড়ের ঠেলায় কোচবিহার ১নং ব্লক কার্যালয় চত্বরে এদিন অসুস্থ হয়ে পড়ে বেশ কয়েকজন। হঠাৎ করেই রটে যায় সেখানে একজনের মৃত্যু হয়েছে।

যদিও বিষয়টি একেবারে গুজব বলে জানিয়েছেন কোচবিহার ১ নং ব্লকের সমস্টি উন্নয়ন আধিকারিক গঙ্গা ছেত্রী। তিনি বলেন, লাইনে দাড়িয়ে কারোর মৃত্যু হয়েছে এরকম কোনও খবর আমার জানা নেই। তবে কিছু মানুষ অসুস্থ হয়েছেন তাঁদের চিকিৎসার জন্য মেডিক্যাল টিমকে দাকা হয়েছে। এদিকে এই ব্লক কার্যালয়ে ভোটার কার্ড সংশোধনের কাজে চূড়ান্ত অনিয়ম হচ্ছে বলে অভিযোগ স্থানীয়দের। সেখানে কোন নিরাপত্তার ব্যবস্থা নেই বলে অভিযোগ  করেন লাইনে দাড়িয়ে থাকা সবিতারানি সরকার বাসন্তী সরকার, বীজেস্বর প্রামানিক প্রমুখরা। শুধু লাইনে শৃঙ্খলা নিয়েই নয় সরকারী বিনা পয়সার এই ফর্ম কালোবাজারি হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। সব মিলিয়ে কোচবিহার ১নং ব্লকে যে অরাজকতার পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে তা অনেকাংশেই মেনে নিয়েছেন প্রশাসনিক আধিকারিকরা।

এবিষয়ে স্থানীয় বিডিও গঙ্গা ছেত্রী জানান, মানুষের যে এত রাশ হবে তা আমরা ভারতে পারিনি। আমরা চেষ্টা করছি পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার। সময়সূচি অনুযায়ী এদিনই এই কার্যসূচি শেষ হবার কথা ছিল। তাই এত ভিড় হয়েছে বলে মনে করছি। একই সাথে তিনি বলেন সময়সীমা বারাবার সরকারী ঘোষণা এখনও ব্লকে এসে পৌছায়নি। তবে শোনা যাচ্ছে এই কার্যসূচির সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে।