ছেলের জন্মদিনে স্বামীর হাতে খুন স্ত্রী, চাঞ্চল্য এলাকায়

464

দক্ষিন ২৪ পরগনা, ১৩ অক্টোবরঃ ছেলের জন্মদিনে  শুভেচ্ছা জানাতে এসে ছেলের সামনেই বাবার হাতে খুন হলেন মা। ঘটনাটি ঘটেছে মহেশতলার মেমানপুর এলাকায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, পনেরো বছর আগে মহেশতলার মেমানপুরের বাসিন্দা শিবু কর্মকারের সাথে বিয়ে হয়েছিল বজবজ কালীকাপুরের বাসিন্দা বয়স ২৮ এর মধুমিতার। তাদের এগারো বছরের একটি পুত্র সন্তানও রয়েছে।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ২০১৭ সাল থেকে মধুমিতা এবং শিবুর মধ্যে পারিবারিক বিষয়ে কিছু সমস্যা শুরু হয়। তাই মধুমিতা বাপের বাড়িতে থাকতে শুরু করেন। শনিবার মধুমিতা এবং শিবুর একমাত্র ছেলে ইমনের জন্মদিন ছিল। সেই জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাবার জন্য মধুমিতা তার বোনকে নিয়ে মেমানপুরের তাঁর স্বামীর বাড়িতে আসেন। স্ত্রীকে বাড়িতে দেখেই বেজায় চটে যান শিবু। প্রথমে তিনি তাদের ঘরে ঢুকতে বাঁধা দেয়। বাধাপ্রাপ্ত হয়ে মধুমিতা তার বোনকে নিয়ে মহেশতলা থানায় গিয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করেন। ফের  ওই বাড়িতে ছেলেকে শুভেচ্ছা জানাতে গেলে হঠাৎই শিবু একটি চপার নিয়ে স্ত্রী মধুমিতাকে ছেলের সামনেই কোপাতে শুরু করে বলে অভিযোগ।

ঘটনাস্থলে পাড়ার লোকজন জড়ো হয়ে গেলে শিবু পালাবার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়। পরে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে মহেশতলা থানার পুলিশ। এরপর পুলিশ তাকে আটক করে। প্রতিবেশীরা  আহত মধুমিতাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসকেরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। এই ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।