বিবাহবার্ষিকীর রাতে গৃৃহবধুর উপর শারীরিক অত্যাচার, গ্রেপ্তার স্বামী ও শাশুড়ি

320

ওয়েব ডেস্ক, ২৯ জানুয়ারি: বধূ নির্যাতন রুখতে রয়েছে কঠোর আইন। কিন্তু তা সত্ত্বেও সাংসারিক হিংসায় লাগাম টানা যাচ্ছে না। বিবাহবার্ষিকীর দিনই গৃহবধূর উপরে চলল অকথ্য অত্যাচার। ঘটনাটি হিমাচলপ্রদেশের মন্ডী জেলার। ফেসবুকে ভিডিয়ো পোস্ট করে শ্বশুরবাড়ির বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন খুশবু নামে ওই গৃহবধূ ও তার পরিবার।পরে নির্যাতিতার পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হলে অভিযুক্ত স্বামী ও শাশুড়িকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিস।

জানা গেছে, গত ২৬ জানুয়ারি, বিবাহবার্ষিকীর দিন সমস্ত সীমা পেরিয়ে যায়। অভিযোগ, খুশবুর হাত-পা বেঁধে রাতভর বেধড়ক মারধর করে চিরঞ্জিত্ ও তাঁর মা ইন্দ্রাদেবী। ২৭ জানুয়ারি বাপেরবাড়িতে চলে যান খুশবু। বাপেরবাড়ি থেকে তাঁর উপরে অত্যাচারের ভয়াবহ কাহিনী ফেসবুকে ভিডিয়ো করে পোস্ট করেন তিনি। পুলিসে অভিযোগও করা হয়।

নির্যাতিতার মায়ের অভিযোগ,বিয়ের পর থেকেই ওই বধূর উপর নিয়মিত অত্যাচার করতো শ্বশুরবাড়ির লোকেরা। সবসময় আতঙ্কের মধ্যে কাটাতে হতো তাকে। কোনো ভুল হলেই মিলতো মার। সেসব প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে এই ভিডিওটিতে। ওই মেয়েটির বাবা ও মা এই ঘটনা সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন। মেয়েটির গায়ে অত্যাচারের চিহ্ন স্পষ্ট।সারা গায়ে মারের দাগ, শরীরের কিছু অংশে কালো ছোপ ছোপ দাগ হয়ে গিয়েছে। এই ভিডিওটি পোস্ট করে মেয়ের শ্বশুরবাড়ির লোকদের পর্দা ফাঁস করে হয়েছে।

পরে খুশবু তার স্বামীর বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়। ওই অভিযোগের ভিত্তিতে ভারতীয় দণ্ডবিধিক ৪৯৮এ ও ৩২৩ ধারায় মামলা করেছে পুলিস। পরে তার স্বামী ও শাশুড়িকে পুলিশ গ্রেফতার করে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিস।