নিয়োগ-সংক্রান্ত রিপোর্ট যেত মুখ্যমন্ত্রীর কাছে, আদালতে দাঁড়িয়ে দায় এড়ালেন পার্থ

0
83

খবরিয়া ২৪ নিউজ ডেস্ক, ৭ জুলাই, কলকাতাঃ এসএসসি-তে নিয়োগের দায় ফের অস্বীকার করলেন জেলবন্দি পার্থ চট্টোপাধ্যায়। পাশাপাশি সরাসরি মুখ্যমন্ত্রীর দপ্তরের দিকে দায় ঠেললেন তিনি। এদিন আলিপুর আদালতে পার্থর দাবি, “নিয়োগ সংক্রান্ত রিপোর্ট যেত মুখ্যমন্ত্রীর কাছে। এই বিষয়ে আমার কোনও ভূমিকা ছিল না।”

নিজের জামিনের সপক্ষে আগেও আদালতে সওয়াল করতে দেখা গিয়েছিল পার্থকে। প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী এধিন আদালতে বলেন, ‘এক বছর ধরে সিবিআই কোনো তথ্যপ্রমাণ দিতে পারেনি। সামনে পুজো, আমারও পরিবার আছে, আমাকে জামিন দিন’।

এদিন আরও একধাপ এগিয়ে পার্থর দাবি, “এসএসসি বোর্ড চালায়। এখানে মিনিস্টারের কোনও রোল ছিল না। আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হয়েছে। আমি জামিনে মুক্ত হয়ে প্রকৃত অপরাধীদের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যেতে চাই। তাই আমাকে জামিন দেওয়া হোক।“

এরপরই মুখ্যমন্ত্রীর প্রসঙ্গ টেনে এনে তৃণমূলের প্রাক্তন মহাসচিবের দাবি, “বিভিন্ন দপ্তরের সচিবরা মন্ত্রীকে রিপোর্ট করেন। সেই রিপোর্ট যায় মুখ্যমন্ত্রীর কাছে। নিয়োগ দুর্নীতিতে আমার কোনও ভূমিকা নেই।” পাশাপাশি, রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের অসুস্থতা নিয়ে পার্থ বলেন, ‘আমার বস বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য অসুস্থ, আমিও অসুস্থ’।

প্রশাসনিক মহলের অবশ্য ব্যাখ্যা, যেকোনও নিয়োগের ক্ষেত্রে মুখ্যমন্ত্রীর অনুমতির দরকার হয়। তার মানে এই নয় যে সংশ্লিষ্ট নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগ ওঠা মানে মুখ্যমন্ত্রীও তার সঙ্গে জড়িত। তবে এনিয়ে রাজনৈতিক বিতর্ক থামছে না।

তৃণমূল মুখপাত্র কুণাল ঘোষ জানিয়েছেন, পার্থ চট্টোপাধ্যায় সম্পর্কে দল তাঁর অবস্থান আগেই স্পষ্ট করে দিয়েছে। তিনি কোথায় কী বললেন তা নিয়ে দলের কোনও মন্তব্য নেই। এদিকে আগামী ১৭ অগস্ট পর্যন্ত পার্থকে বিচারবিভাগীয় হেপাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here