বাচিক শিল্পীকে আক্রমণের প্রতিবাদ কবি জয় ও মন্দাক্রান্তার

9

ওয়েব ডেস্ক, ২৫ সেপ্টেম্বরঃ যাদবপুর কাণ্ড নিয়ে চুপ করে থাকতে পারেননি প্রখ্যাত বাচিকশিল্পী ঊর্মিমালা বসু সহ অনেক শুভবুদ্ধি সম্পন্ন মানুষ। কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়র উদ্দেশ্যে তিনি মন্তব্য করে বলেন , “বাবুলের উচিৎ ওই বাচ্চাগুলোর কাছে ক্ষমা চেয়ে নেওয়া।” এই কথা বলার পরই তাঁর ওপর নামিয়ে আনা হয় আক্রমণ। এমনকি বিজেপি সমর্থকরা ঊর্মীমালা বসুকে ‘যৌনদাসী’ বলেও আক্রমণ করে বলে অভিযোগ। এরপরই সমালোচনায় সরব হন সংবেদশীল ব্যক্তিত্বরা। ওইদিনের ঘটনায় ঊর্মিমালা বসুকে আক্রমণের তীব্র নিন্দা করেন কবি জয় গোস্বামী, মন্দাক্রান্তা সেনসহ অন্যান্যরা। ঘটনায় ধিক্কারে ধিক্কারে ভরে যায় সোশ্যাল মিডিয়া।

এদিন কবি জয় গোস্বামী তার ফেসবুকে লিখেন, “শ্রীযুক্তা ঊর্মিমালা বসু একজন সর্বজনমান্য শিল্পী। তাঁর গুণমুগ্ধ অসংখ্য অনুরাগীর মধ্যে আমিও একজন। সেই শিল্পীকে এমন ভাষায় অপমান করা হল যা চরম অশালীনতায় ভরা।তিনি বলেন, এরা কারা? যাদের মন এতটা নোংরা ? আমি বিজেপি সমর্থকদের তীব্র ধিক্কার জানাচ্ছি। আশা করব সমস্ত শুভবুদ্ধি সম্পন্ন নাগরিক এমন উক্তির সমর্থনে প্রতিবাদ জানাবেন।

অন্যদিকে কবি মন্দাক্রান্তা সেন মঙ্গলবার সকালে নিজের ফেসবুক পোস্টে কবিতার মধ্যে দিয়ে এই ঘটনার প্রতিবাদ ব্যক্ত করেছেন।তিনি লেখেন, কাকে কী বলছে কে বানর অবতার, আমরা আজকে জিভ ছিঁড়ে দেবো তার, মানুষ হোসনি ইতর অশিক্ষিত, তারই প্রমাণ তোর আচরণটি তো, জানো না হে কত বেড়েছে তোমার বাড়, সহ্য করি না সহ্য করি না আর, নারী বলতে কি একটাই কথা জানো? নোংরা কথায়, হায়, মা’কে টেনে আনো? তোমার কথায় মা’ রও অপমান নাকি? কান খুলে শোনো, বদলা রয়েছে বাকি।