ছট পূজায় সাঁকো ভেঙ্গে যাবার ঘটনায় গ্রেপ্তার ২, তদন্তে পুলিশ

3353

কোচবিহার, ৩ অক্টোবরঃ ছট পূজা উপলক্ষ্যে তৈরি করা বাঁশের সাঁকো ভাঙ্গার ঘটনায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে সাঁকো নির্মাণকারী সংস্থার দুজনকে। গ্রেপ্তার হওয়া  ওই দুই ব্যক্তির নাম তরুণরায়,ও শুভ্রাংসু সাহা। শনিবার বিকালে ছট পূজার অন্যতম ঘাট বলে পরিচিত ফাঁসিরঘাটে ছটের জন্য অস্থায়ীভাবে নির্মিত সেতু হঠাৎই হুরমুরিয়ে ধসে পরে। সেই সময় ছটের পূর্ণাথীরা ডালি মাথায় নিয়ে ওই সাঁকো দিয়ে আসা যাওয়া করছিল।এদিকে ঘটনার খবর পাওয়ার পর পরই সেখানে ছুটে যায় কোচবিহার কোতোয়ালী থানার পুলিশ এবং বিপর্যয় মোকাবিলা টিম।

সন্ধ্যায় সেই স্থান পরিদর্শনে যায় উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তরের মন্ত্রী রবীন্দ্র নাথ ঘোষ।পরে খবর পাওয়ার পর সেখানে ছুটে যায় কোচবিহার পৌরসভার পৌরপিতা ভূষণ সিং, প্রাক্তন সাংসদ তথা জেলা যুব তৃণমূলের কার্যকারী সভাপতি পার্থ প্রতিম রায়, সদর মহকুমা শাসক সঞ্জয় পাল সহ অন্যান্য প্রশাসনিক আধিকারিকরা।

জানা গেছে, ছটপূজা উপলক্ষ্যে তোর্সা নদীর উপর তৈরি করা হয়েছিল অস্থায়ী বাঁশের সাঁকো। এদিন বিকেলে অস্তমিত সূর্যকে আমন্ত্রন জানিয়ে পুর্নাথীরা যখন ছটের ডালি মাথায় নিয়ে বাড়ি ফিরছিল। সেই সময় কোচবিহার ফাঁসিরঘাট এলাকায় অস্থায়ী ভাবে নির্মিত বাঁশের সাঁকোতে হঠাৎ করে বহু মানুষ উঠতেই ভেঙ্গে পরে সাঁকোটি। এর ফলে ওই সাঁকো ভেঙ্গে বেশ কিছু মানুষ জলে পরে যায়। ঘটনায় এই পর্যন্ত কোনও হতাহতের খবর পাওয়া না গেলেও, নদীর স্রোতে ভেসে যাওয়ার আশঙ্কা উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে কোচবিহার কোতোয়ালি থানার পুলিশ ও বিপর্যয় মোকাবিলা টিম। এরপরই তড়িঘড়ি শুরু হয় সাঁকোটি পুনর্নির্মাণের কাজ।

এদিকে পুলিশ ঘটনার তদন্তে নেমে ২ জন গ্রেপ্তারের ঘটনায় রহস্য দানা বেঁধেছে। তবে কি কোনও নিয়ম না মেনেই এই সাঁকো তৈরি করা হয়েছিল নাকি সংস্থার কেউ দায়শারা ভাবে এই কাজ করেছে তাঁর তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।