যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র মৃত্যুর কাণ্ডে এক প্রাক্তনীকে আটক করল পুলিশ

0
56

খবরিয়া ২৪ নিউজ ডেস্ক, ১১ অগাস্ট, কলকাতাঃ যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র স্বপ্নদীপ কুণ্ডুর মৃত্যুর ঘটনায় সৌরভ চৌধুরী নামে এক প্রাক্তনীকে আটক করল পুলিশ। স্বপ্নদীপের বাবা রামপ্রসাদ কুণ্ডুর দায়ের করা এফআইআরে নাম ছিল, সৌরভ চৌধুরীর। সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই শুক্রবার সৌরভকে থানায় ডেকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তারপরই তাঁকে আটক করে পুলিশ। এই প্রথম যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রের মৃত্যুর ঘটনায় কাউকে আটক করল পুলিশ।

স্বপ্নদ্বীপের বাবার দাবি, সৌরভের নেতৃত্বেই অত্যাচার করা হয়েছে তাঁর ছেলের ওপর। নিচে ফেলে মেরে দেওয়া হয়েছে তাঁর ছেলেকে। স্বপ্নদীপের বাবা জানিয়েছেন, গত ৩ অগাস্ট যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের বাইরে একটি চায়ের দোকানে তাঁর সঙ্গে আলাপ হয়েছিল সৌরভের। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান বিভাগের প্রাক্তন ছাত্র সৌরভ।

সৌরভই তাঁর ছেলেকে অন্য একজনের সঙ্গে হোস্টেলে থাকার ব্যবস্থা করে দিয়েছিল। হোস্টেল না পেলেও যে গেস্ট হয়ে থাকা যায় সে কথা সৌরভের থেকেই প্রথম জানতে পারে স্বপ্নদীপ। প্রসঙ্গত, বুধবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের মেন হস্টেলের ‘এ’ ব্লকের তৃতীয় তলার বারান্দা থেকে পড়ে গিয়ে মৃত্যু হয় স্বপ্নদীপের। তড়িঘড়ি করে উদ্ধার করে স্থানীয় বেসরকারি হাসপাতালে তাঁকে ভর্তি করানো হয়।

রাতভর মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে, বৃহস্পতিবার ভোর ৪টে নাগাদ হাসপাতালে মৃত্যু হয় তাঁর। সেই ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে ক্যাম্পাস। খবর পেয়ে মাঝরাতেই হাঁসখালি থেকে হস্টেলে ছুটে আসেন স্বপ্নদীপের বাবা ও মা। তাঁদের অভিযোগ, ব়্যাগিংয়ের শিকার হয়েছে স্বপ্নদীপ।

২০২২ সালে যাদবপুর থেকে এমএসসি পাশ করে সৌরভ। তার বাড়ি চন্দ্রকোনা এলাকায়। জানা গিয়েছে, এমএসসি পাশ করে প্রাক্তনী হয়ে হোস্টেলেই থাকতেন তিনি। হস্টেলে থেকেই চাকরির চেষ্টা করছিলেন সৌরভ। মেস কমিটির গুরুত্বপূর্ণ মেম্বারও ছিলেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে বারবার উঠে এসেছে সৌরভ চৌধুরীর নাম। এদিন সৌরভ সহ আরও কয়েকজনকে থানায় ডেকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ। সূত্রের খবর, সৌরভের কথায় অসঙ্গতি থাকায় তাঁকে আটক করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here