৩৫ তম রাজ্য ভাওয়াইয়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠান নিয়ে তুফানগঞ্জ কলেজে প্রস্তুতি বৈঠক

0
45

প্রদীপ কুন্ডু, তুফানগঞ্জ: চার দিনব্যাপী ৩৫ তম রাজ্য ভাওয়াইয়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হতে চলেছে কোচবিহারের তুফানগঞ্জ কলেজ ময়দানে। শনিবার সেই বিষয় নিয়ে প্রস্তুতি বৈঠক অনুষ্ঠিত হল তুফানগঞ্জ কলেজে। এদিন সেখানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্য ভাওয়াইয়া কমিটির চেয়ারম্যান তথা কোচবিহার পৌরসভার চেয়ারম্যান রবীন্দ্রনাথ ঘোষ, রাজ্য ভাওয়াইয়া কমিটির সদস্য বিনয় কৃষ্ণ বর্মণ, রাজ্য ভাওয়াইয়া কমিটির সদস্য তথা এনবিএসটিসি চেয়ারম্যান পার্থ প্রতিম রায়, তুফানগঞ্জ মহকুমা শাসক বাপ্পা গোস্বামী সহ অন্যান্যরা।

জানা গেছে,পশ্চিমবঙ্গ সরকারের অনগ্রসর কল্যাণ দপ্তরের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে রাজ্য ভাওয়াইয়া উৎসব অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২৫-২৮শে ফেব্রুয়ারী তুফানগঞ্জ কলেজ ময়দানে। সেই বিষয় নিয়ে শনিবার তুফানগঞ্জ কলেজে প্রস্তুতি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে কিভাবে প্যান্ডেল করা হবে, কিভাবে সেখানকার কাজ কর্ম করা হবে। যেহেতু ২৫-২৮ তারিখ চারদিন পর্যন্ত রাজ্য ভাওয়াইয়া সঙ্গীত প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সেই সময় উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা চলবে। যাতে ছাত্রছাত্রীদের পড়াশুনা বা কোনরকম ব্যাঘাত না ঘরে সেটা নিয়ে প্রশাসনের লোকজনের সাথে কথা এবং প্রস্তুতি বৈঠক করা হয়। সেখানে দুজনকে আব্বাস উদ্দিন স্মৃতি ও নায়েব আলি স্মৃতি সম্মান দেওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে।

এদিন বৈঠক শেষে রাজ্য ভাওয়াইয়া কমিটির চেয়ারম্যান তথা কোচবিহার পৌরসভার চেয়ারম্যান রবীন্দ্রনাথ ঘোষ বলেন, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির অনুপ্রেরণায় ৩৫ তম রাজ্য ভাওয়াইয়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হতে চলেছে আগামী ২৫-২৮শে ফেব্রুয়ারী তুফানগঞ্জ কলেজ ময়দানে। সেই অনুষ্ঠান নিয়ে আজ তুফানগঞ্জ কলেজে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। যেহেতু উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা আছে। সেই দিক দিয়ে লক্ষ্য রেখে আমাদের প্যান্ডেল ও মাইক সেট ব্যবহার করা হবে। যাতে ওই অনুষ্ঠানের আওয়াজ বাইরে যেতে না পারে সেই দিক দিয়ে বিচার করে কাজ করা হবে। ওই রাজ্য ভাওয়াইয়া সঙ্গীত প্রতিযোগিতায় ৩২টি ব্লকের মোট ১২৮ জন প্রতিযোগিতায় অংশ নেবে। ওই অনুষ্ঠান শেষ দিনে যারা প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় তাদের পুরস্কার ও সার্টিফিকেট দেওয়া হবে। সেখানে আসাম, বাংলা এবং বাংলাদেশের শিল্পীদের নিয়ে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। ওই অনুষ্ঠানে দুজনকে আব্বাস উদ্দিন স্মৃতি ও নায়েব আলি স্মৃতি সম্মান দেওয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, ভাওয়াইয়া গান যেখান থেকে সৃষ্টি সেটা হল তুফানগঞ্জের বলরামপুর। সেখান আব্বাস উদ্দিন, নায়ের আলি টেপু সহ বহু ভাওয়াইয়ার জনক এখানে জন্মেছেন। তাই তুফানগঞ্জে ৩৫ বছরে প্রথমবার অনুষ্ঠিত হচ্ছে রাজ্য ভাওয়াইয়া সঙ্গীত প্রতিযোগিতার অনুষ্ঠান। আমরা চাই স্থানীয় লোকজন ও ভাওয়াইয়া প্রেমী মানুষরা সকলে এগিয়ে আসেন। যাতে আমরা ভাওয়াইয়া গানকে বাঁচিয়ে রাখতে সেই চেষ্টাই করছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here