ক্লাস চলাকালীন ছাত্রদের কাছে ধরা ১৬টা মোবাইল হাতুড়ি দিয়ে ভেঙ্গে দিলেন প্রিন্সিপাল !

116

ওয়েব ডেস্ক, ১৫ সেপ্টেম্বরঃ ক্লাস চলাকালীন প্রিন্সিপালের হাতে ধরা পড়ল ১৬ টি মোবাইল ফোন। তার পর এক ধার থেক হাতুড়ির দিয়ে ভেঙ্গে দিল সব ফোন গুলি।সামনে চেয়ারে বসে সেই দৃশ্য দেখল পড়ুয়ারা। ঘটনাটি ঘটেছে, কর্নাটকের এমইএস চৈতন্য পিইউ কলেজে।     

জানা গিয়েছে, হাতুড়ি দিয়ে মোবাইলের দফারফা করছিলেন যিনি, তিনি কলেজেরই প্রিন্সিপাল আরএম ভাট। প্রিন্সিপাল জানান, তিনি আগেই ফরমান জারি করেছিলেন কলেজে ক্লাস চলাকালীন মোবাইল ব্যবহার চলবে না। বার কয়েক ছাত্রীদের বকাও দিয়েছিলেন। তবে তাতে বিশেষ কিছু কাজ হয়নি। লুকিয়ে চুরিয়ে মোবাইল নিয়ে ক্লাসে ঢুকছিল অনেক ছাত্রীই। গত বৃহস্পতিবার আচমকাই ক্লাসে ক্লাসে হানা দেন তিনি। তাতেই বাজেয়াপ্ত হয় ১৬টা মোবাইল। শুধু মোবাইল কেড়েই শান্ত হননি তিনি। টেবিলের উপর সেগুলো সাজিয়ে হাতুড়ির এক এক ঘায়ে ভেঙে চুরমার করে দেন। আর সেই দৃশ্য ছাত্রীদের চোখের সামনে বসিয়ে দেখান। যাতে আর তারা ক্লাস চলাকালী ফোন নিয়ে না আসেন।

স্যোশাল মিডিয়ায় এই ভিডিওটি ভাইরাল হতেই প্রিন্সিপালের বিরুদ্ধে সমালোচনার ঝড় উঠেছে।অনেক ছাত্রীই প্রত্যন্ত গ্রাম থেকে কলেজে আসে সে কারণেই তাদের কাছে একটি মোবাইল ফোন রাখাটি জরুরি। সেসব কিছু বিবেচনা না করেই একজন প্রিন্সিপাল হয়ে কি করে এমন একটি কাণ্ড ঘটাতে পারেন তিনি, যেটা সত্যিই অনুচিত। মোবাইল-সমেত ক্লাসে ধরা পড়লে বকাঝকা, অন্যদিছু শাস্তি দিতে পারত। তাই বলে একেবারে মোবাইল ভাঙ্গার দারকার ছিল না।