যাত্রীদের থেকে অনুদানের দাবি জানিয়ে পোস্টার সেটে আজ থেকে রাস্তায় নামলো বেসরকারি বাস

31

ওয়েব ডেস্ক, ৭ই জুলাইঃ সরকারি বিধিনিষেধ ওঠার পাঁচদিন পেরিয়ে গেছে, কিন্তু বহু আলোচনার পরও বেসরকারি বাসের ভাড়া নিয়ে জট কাটেনি। সাধারণ মানুষের অসুবিধার কথা ভেবে যেমন ভাড়া বাড়ায়নি সরকার তেমনই ভাড়া বাড়াতে এবার বিকল্প রাস্তায় হাঁটছেন বাসমালিকরা। যাত্রীদের থেকে অনুদানের দাবি জানিয়ে পোস্টার সেটে আজ থেকে রাস্তায় নামলো বেসরকারি বাস।

বাসমালিকরা জানাচ্ছেন, জোর করে এই ভাড়া নেওয়া হবে না। তবে বাড়তি ভাড়া চাওয়া হবে। কেউ দিতে চাইলে দেবে না দিলে দেবেন না। জোর করা হবে না। তবে পেট্রল, ডিজেলের অস্বাভাবিক দাম বৃদ্ধির কথা মাথায় রেখেই এই ভাড়া চাওয়া হচ্ছে। প্রতি বাসের ভিতরে এবং বাইরে লাগানো এই পোস্টার। মঙ্গলবার দিনভর চলেছে সেই প্রস্তুতি। তাহলে সর্বনিম্ন ভাড়া কত হবে? বাস মালিকরা জানিয়েছেন, সর্বনিম্ন ভাড়া সাত টাকার বদলে চাওয়া হবে ১০ টাকা। তার পর ধাপে ধাপে বাড়বে।

এদিকে, মঙ্গলবার আগের থেকে রাস্তায় বেসরকারি বাসের সংখ্যা বাড়লেও তা ছিল মোট বাসের শতাংশের হিসাবে সামান্যই। সরকারি বাস প্রচুর সংখ্যায় রাস্তায় নামে। তাই দিয়েই যাত্রীচাপ সামাল দেওয়া হয়েছে। ওয়েস্ট বেঙ্গল বাস মিনিবাস ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ নারায়ণ বোস বলেন, “আমরা অনুদান হিসাবে যাত্রীদের কাছে একটু বাড়তি ভাড়ার আবেদন করছি। সেই মতোই সব বাসে পোস্টারিং করা হচ্ছে। আশা করছি বুধবার থেকে রাস্তায় বাসের সংখ্যা বাড়বে।” অল বেঙ্গল বাস মিনিবাস সমন্বয় সমিতির সাধারণ সম্পাদক রাহুল চট্টোপাধ্যায় অবশ্য বলেন, “আমরা আলাদা করে কোনও পোস্টারিং করছি না। তবে বাড়তি ভাড়া যদি কেউ নেয় পরিস্থিতি বিবেচনা করে তাকে আমরা বারণও করব না।”