শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়ির গেটে বিক্ষোভ,আটক একাধিক পার্শ্বশিক্ষক

180

ওয়েব ডেস্ক, ২৩ ফেব্রুয়ারিঃ শিক্ষামন্ত্রীর বাড়ির গেটে ধুন্ধুমার, এসএসসি হবু শিক্ষকদের বিক্ষোভে উত্তাল নাকতলা। এদিন দুপুর ২ টো নাগাত স্কুল সার্ভিস কমিশনের চাকরিপ্রার্থীরা বিক্ষোভ দেখান শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়ির গেটের সামনে। হাতে প্ল্যাকার্ড আর মুখে স্লোগান নিয়ে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন তাঁরা। বিক্ষোভরত অবস্থায় তাঁরা শুয়ে পড়েন পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়ির গেটের সামনে। জটলা দেখে হাজির হয় পুলিশ।

শিক্ষকদের অনেক ধরনের প্রতিবাদ আন্দোলন দেখেছে বাংলা। কিন্তু আজ যা ঘটল তা একপ্রকার নজিরবিহীন। গন্তব্য মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ি, আদি গঙ্গায় নেমে সাঁতরে রওনা দেন পার্শ্বশিক্ষকরা। এমন অভূতপূর্ব প্রতিবাদ এর আগে দেখেনি তিলোত্তমা। চলতি মাসের ১৬ তারিখে সকাল সাড়ে ১০টা নাগাত এই ঘটনা ঘটে। পার্শ্ব শিক্ষকরা সেদিন বুঝিয়েদেন আন্দোলনের জল কতদূর গড়াতে পারে।

মঙ্গলবার আজ দুপুর ৩ টে নাগাত শিক্ষামন্ত্রীর বাড়ির সামনে বিক্ষোভ দেখান কয়েকজন পার্শ্ব শিক্ষক। মূলত স্থায়ীকরন এবং বেতন বৃদ্ধির দাবিতে বিক্ষোভ দেখান তাঁরা। আজ পার্থ বাবুর নাকতলার বাড়ির সামনে প্ল্যাকার্ড হাতে আর মুখে স্লোগান নিয়ে বিক্ষোভ দেখান তাঁরা। জটলা দেখে সেখানে পৌঁছায় পুলিশ। বিক্ষোভকারীদের প্রথমে থামতে বলা হয়। কিন্তু তাতে আন্দোলনকারীরা পিছু না হটায়। তাদের আটক করে পুলিশ।

পার্শ্ব শিক্ষকদের অভিযোগ, তাদের বেতনের ৬০ শতাংশ কেন্দ্র আর ৪০ শতাংশ রাজ্য দিয়ে থাকেন৷ সেক্ষেত্রে, কেন্দ্রের দেওয়া উচ্চ প্রাথমিক এবং প্রাথমিক পার্শ্ব শিক্ষকদের যথাক্রমে ২০,০০০ এবং ১৫,০০০ টাকা কেন্দ্র দিয়ে থাকে৷ কিন্তু হিসেবে দেখা যাচ্ছে প্রতি মাসে প্রাথমিক শিক্ষক-শিক্ষিকারা কয়েক হাজার টাকা কম বেতন পাচ্ছেন৷ তাহলে সেই টাকা কোথায় যায় সেই প্রশ্নের উত্তর রাজ্য সরকারকেই দিতে হবে৷

এদিকে সরাসরি বিজেপির প্রভাব পড়েছে পার্শ্ব শিক্ষকদের আন্দোলনে। মুকুল রায় প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন বিজেপি ক্ষমতায় এলে পার্শ্বশিক্ষকদের স্থায়ী করা হবে ৭ দিনে। আর মুকুলের প্রতিশ্রুতি পেয়েই অনশন তুলে নিয়েছেন পার্শ্ব শিক্ষকরা। সল্টলেকের বিকাশভবনের কাছে লাগাতার কয়েক সপ্তাহ ধরে বেশ কিছু দাবি দাওয়া নিয়ে বিক্ষোভ দেখিয়ে যাচ্ছেন। এবার সেই আন্দোলনে সরাসরি পড়তে চলেছে গেরুয়া ছাপ।