কোচবিহারে পালিত হল রাজবংশী ভাষা দিবস, সংবর্ধিত হলেন সাহিত্যিক দ্বীজেন্দ্রনাথ ভগৎ

149

কোচবিহার, ২৮ অক্টোবরঃ রাজবংশী ভাষা অ্যাকাডেমির পক্ষ থেকে কোচবিহারে পালন হল রাজবংশী ভাষা দিবস।এই উপলক্ষে সোমবার শহরের গুঞ্জবাড়িতে অবস্থিত ঠাকুর পঞ্চানন হলে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এদিনের এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ, জেলাশাসক পবন কাদিয়ান, জেলা পুলিশ সুপার সন্তোষ নিম্বলকর, রাজবংশী ভাষা অ্যাকাডেমির ভারপ্রাপ্ত  চেয়ারম্যান বংশীবদন বর্মন, প্রাক্তন সাংসদ পার্থ প্রতিম রায়, বিজয় রায়, প্রসেনজিৎ বর্মন মহকুমা শাসক সঞ্জয় পাল প্রমুখ।

এইদিন একাডেমীর পক্ষ থেকে বিশিষ্ট সাহিত্যিক তথা রাজবংশী ভাষার গবেষক ডক্টর দ্বীজেন্দ্রনাথ ভগৎকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়। দ্বীজেন্দ্রবাবু অসমের গোলকগঞ্জ এলাকায় বাস করেন। দীর্ঘদিন থেকে তিনি রাজবংশী ভাষার উপর গবেষণা করে আসছেন। তিনি এই ভাষার বিশিষ্ট সাহিত্যিকও বটে।

২০১০ সালের ২৮ অক্টোবর দিল্লীর সাহিত্য একাডেমী রাজবংশী ভাষা সম্মান প্রদান করেন সাহিত্যিক ডক্টর গিরীজাশঙ্কর রায়কে। রাজবংশী ভাষা সাহিত্যে বিশেষ অবদানের জন্য তাঁকে এই সম্মান প্রদান করা হয়। এই দিবসটিকে মান্যতা দিয়ে রাজবংশী ভাষা দিবস পালিত হয় বর্তমানে।

এদিন প্রাক্তন সাংসদ পার্থ প্রতিম রায় বলেন, “কোচবিহার তথা উত্তরবঙ্গের অন্যতম ভাষা হিসেবে রাজবংশী ভাষা এক আলাদা মাত্রা রাখে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও রাজবংশী ভাষার উন্নয়ন এর জন্য যথেষ্ট কাজ করে চলেছেন। তিনি নিজেই রাজবংশী ভাষার একটি বই উপলব্ধি অনুবাদ করছেন। ভাষার স্বীকৃতিসহ উত্তরের মানুষের কাছে এই ভাষা পৌঁছে দেওয়ার যে গুরুদায়িত্ব বর্তমান রাজ্য সরকার নিয়েছে তা রাজবংশী ভাষায় একাডেমি অক্ষরে অক্ষরে পালন করছে।”

রাজবংশী ভাষা অ্যাকাডেমির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান বংশীবদন বর্মন বলেন,“এই দিবসটি আমরা বিশেষ মর্যাদা দিয়ে পালন করে আসছি বেশ কয়েক বছর ধরে। আমরা চাই এই ভাষার আরও সমৃদ্ধি, এই লক্ষকে সামনে রেখে রাজবংশীর ভাষা একাডেমী কাজ চলেছে।”