খুনী সুশীলের ফাঁসি চান সাগরের বাবা-মা

250

ওয়েব ডেস্ক, ২৪ মেঃ সুশীল কুমারের ফাঁসি চাইলেন সাগর ধনকড়ের বাবা। ৫ মে ছত্রসাল স্টেডিয়ামের বাইরে দু’দল কুস্তিগিরদের ঝামেলার জেরে প্রাণ হারান ২৩ বছরের কুস্তিগির। ১৮ দিন পালিয়ে বেড়ানোর পর পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে দু’বারের অলিম্পিক পদকজয়ীকে। আদালতেও পেশ করা হয়েছে তাঁকে। আপাতত ওই মামলার তদন্তের ভার পড়েছে দিল্লি ক্রাইম পুলিশের উপর।

তার মধ্যেই সাগরের বাবা অশোক বলেছেন, ‘সুশীলের রাজনৈতিক যোগ আছে। তা দিয়ে ও খুব সহজেই তদন্তকারীদের প্রভাবিত করতে পারে। আমরা ভয় পাচ্ছি, সেই কারণে যেন ও বাড়তি সুবিধা না পায়।’ বেগমপুর থানার কনস্টেবল অশোক। ছেলে মারা যাওয়ার পর তিনিই দাবি তুলেছিলেন তদন্তের। সেই অশোক বলছেন, ‘আমরা বিচার চাই। ও কোথায় পালিয়ে বেড়াত, কে ওকে আশ্রয় দিয়েছিল, কোন গ্যাংস্টারের সঙ্গে ওর যোগ আছে, সব জানতে চাই। ওর ফাঁসি চাই আমরা। যাতে লোকের কাছে একটা উদাহরণ হয়ে থাকে।’

প্রতিশ্রুতিমান কুস্তিগির সাগরের আইডল ছিলেন সুশীল। তাঁর কোচিংয়েই অলিম্পিকে পদক জয়ের স্বপ্নও দেখতেন তিনি। সেই সুশীলই তাঁর ছাত্রকে খুন করেছেন বলে দাবি তুলছেন সাগরের পরিবার। প্রয়াত কুস্তিগিরের মা বলেছেন, ‘যে আমার ছেলেকে খুন করেছে, সে কারও আইডল হতে পারে না। কারও কোচ হতে পারে না। সুশীল যে সব মেডেল দেশের হয়ে জিতেছে, কেড়ে নেওয়া হোক। ওর যতই রাজনৈতিক যোগ থাকুক, পুলিশ যেন নিজের মতো করে তদন্ত করে পুরো ঘটনার।’