জাতি ধর্ম ভুলে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে শ্যামাপূজা ঘোকসাডাঙ্গায়

101

বিদ্যুৎ কান্তি বর্মন, ঘোকসাডাঙ্গাঃ বিদ্রোহী কবির ভাষায় “মোরা এক বৃন্তে দুটি কুসুম হিন্দু মুসলমান” আর  কবির সেই লাইনকে বাস্তবে রূপ দিতে ঘোকসাডাঙ্গা থানার অন্তর্গত বড় শৌলমারীর সিঙ্গিজানি এলাকার নৃপেন্দ্রনারায়ন ভুব বাহাদুর বর্ডার সংঘ করল এক অভিনব পূজার উদ্যোগ।

প্রসঙ্গত, এবারে তাঁদের শ্যামা পূজা ২৩ তম বর্ষে পা দিল। এবারে তাঁরা তাঁদের পূজার মাধ্যমে তুলে ধরতে চেয়েছিল জাতি-ধর্ম-নির্বিশেষে আমরা সবাই এক এই আঙ্গিককে। তাই তারা তাঁদের গ্রামের সমস্ত হিন্দু মুসলমান সম্প্রদায়ের মানুষেরা মিলে এদিন ওই সংঘের পূজা করে বলে জানান ক্লাব সদস্যরা।

এদিন পূজা প্রসঙ্গে ওই পূজা কমিটির সম্পাদক গোবিন্দ বর্মন ও সভাপতি দীপক বর্মন বলেন, আমরা দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে  জাতি ধর্ম নির্বিশেষে  শ্যামাপূজা করে আসছি। এবারের পুজো ২৩ তম বর্ষে পা দিল। আমরা সবাই কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে জাতি-ধর্ম-নির্বিশেষে এই পূজা সম্পূর্ণ করি। এখানেই শেষ নয়, আমাদের পাশাপাশি অন্য সম্প্রদায়ের মানুষরাও আমাদের চাঁদা দিয়ে পূজো করতে সাহায্য করে। আমাদের হিন্দু মা বোনদের পাশাপাশি মুসলিম মা বোনেরাও এই পূজায় অংশগ্রহণ করে।

তাঁরা আরও বলেন আমাদের দুই মুসলিম ভাই  সিরাজুল মিঞা ও করিম মিঞা তাদের পালন করা পাঠাকে দেবীর উদ্দেশ্য উৎসর্গ করেন । আজ আমরা মুসলিম ভাইদের সাথে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে এই পূজা করতে পারছি। এতে আমরা খুবই খুশি আমরা চাই বিগত বছরগুলোতে যাতে আমাদের সাথে সাথে অন্য ক্লাব ও প্রতিষ্ঠানগুলো একই সাথে মিলেমিশে কাজ করে। পূজো দেখতে আসা দর্শনার্থী সহ  এলাকাবাসীরা সবাই একসাথে পুজো দিতে পেয়ে খুশির জোয়ার বয়ে চলেছে পূর্ব সীমান্ত এলাকায়।