জম্মু ও কাশ্মীরে চালু হল এসএমএস পরিষেবা

70

ওয়েব ডেস্ক, ১ জানুয়ারিঃ প্রায় পাঁচ মাস বন্ধ থাকার পর অবশেষে চালু হল উপত্যকার এসএমএস পরিষেবা। নতুন বছরের প্রথম দিনেই চালু হচ্ছে এই পরিষেবা।এমনই সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। এছাড়া নতুন বছর থেকেই হাসপাতালে ব্রডব্যান্ড পরিষেবা চালুর অনুমতি দেওয়া হচ্ছে।৫ অগাস্ট জম্মু ও কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার করা হয়।অশান্তি ও গুজব ঠেকাতে ইন্টারনেট এবং মোবাইল মেসেজিং পরিষেবাসহ নান নিষেধাজ্ঞা চাপানো হয়।মঙ্গলবার কাশ্মীরের প্রিন্সিপ্যাল সেক্রেটারি রোহিত কানসাল এসএমএস পরিষেবা ফের চালুর বিষয়ে ঘোষণা করেন। তিনি জানান, পরিস্থিতির আরও উন্নতি হলে ইন্টারনেট পরিষেবাও ফেরানো হবে।সেপ্টেম্বরে, কাশ্মীরে ল্যান্ডলাইন পরিষেবা পুনরায় চালু করা হয়েছিল। অক্টোবরে চালু হয়েছিল পোস্ট পেইড মোবাইল পরিষেবা। তবে উপত্যকায় এখনও বন্ধ রয়েছে প্রিপেইড মোবাইল পরিষেবা এবং ইন্টারনেট।

৫অগাস্ট জম্মু-কাশ্মীরকে ভেঙে জম্মু-কাশ্মীর ও লাদাখ দুটি পৃথক কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল গড়া হয়। এদিকে গতকাল জম্মু-কাশ্মীরের ৫ রাজনৈতিক নেতাকে মুক্তি দেওয়া হল। ৩৭০ ধারা বাতিলের সময় থেকে বন্দি অবস্থায় ছিলেন তাঁরা। গত ৫ অগাস্ট থেকে তাঁদের আটক করে রাখা হয়।সোমবার শ্রীনগরে এমএলএ হস্টেল থেকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে পাম্পোরের প্রাক্তন বিধায়ক জহুর মীর, ত্রালের এনসি নেতা গুলাম নবি, প্রাক্তন বিধায়ক ইশফাক জব্বর, প্রাক্তন এমএলসি ইয়াসির রেশি ও পিডিপি নেতা বসির মীরকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে। তবে এখনও বন্দি অবস্থায় রয়েছেন মেহবুবা মুফতি, ফারুক আবদুল্লা ও ওমর আবদুল্লা।