সোনা পাল ও বিশ্বনাথ পাহানের বিজেপিতে যোগদান

96

বালুরঘাট, ৮ মার্চঃ তৃনমুলের প্রার্থী তালিকা প্রকাশের সাথে সাথে রাজ্যের দক্ষিনবঙ্গের পাশাপাশি উত্তরবঙ্গে নির্দল হিসেবে দাঁড়ানো ও তৃনমুল ছেড়ে বিজেপিতে যাওয়ার হিড়িক পরে গেছে। যদিও গতকাল পর্যন্ত তৃনমুল নেত্রী উত্তরবঙ্গের মাটিতে দাঁড়িয়ে তার জনজোয়ারের শোম্যানশিপ ইমেজ দেখিয়ে দলের ভাঙ্গন তেমন হবে না বলেই নিশ্চিন্ত ছিলেন। কিন্তু রাত পোহাতে না পোহাতেই চিত্রটা বদলে যেতে থাকে। কলকাতায় গিয়ে তৃনমুল থেকে বিজেপিতে  যাওয়ার দক্ষিন দিনাজপুর জেলার নেতাদের এক এক করে খবর আসতে থাকে। আর এই নিয়ে জেলা জুড়ে চঞ্চল্য ছড়িয়ে পরে জেলার রাজনৈতিক মহলে।

আজ বিকেলে কলকাতার নিজাম প্যালেসের বিজেপির দফতরে উপস্থিত থেকে সোনা পাল ও বিশ্বনাথ পাহান দীলিপ ঘোষ ও মুকুল রায়ের হাত থেকে বিজেপির গেরুয়া পতাকা নিয়ে দলবদলান বলে জানা গেছে। বাচ্চু হাসদার বিজেপিতে যোগদানের ব্যাপারে এখনও কোন খবর মেলেনি। তবে তিনি যে টিকিট না পেয়ে গেরুয়া শিবিরের দিকে পা বাড়িয়ে রয়েছেন।তা এক প্রকার নিশ্চিন্ত।

এদিকে টিকিট পাননি দক্ষিন দিনাজপুর জেলার তপন বিধানসভা আসনের দুবারের জেতা প্রার্থী বাচ্চু হাসদা। গতকাল সন্ধ্যে পর্যন্ত তিনি ফোনে কথা বলার সময় এই প্রতিনিধিকে জানিয়ে দেন তিনি বিজেপি তে যোগ দিচ্ছেন না। কিন্তু রাত পোহাতেই খবর ছড়িয়ে পড়ে বাচ্চু হাসদা কলকাতায় গিয়ে বিজেপিতে যোগ দেবার জন্য মুকুল রায়ের বাড়িতে রয়েছেন। তবে তিনি আজ বিজেপিতে  যোগ দেবেন কিনা তা কেউ বলতে পারছেনা। তপনের বিধায়ক তৃনমুল নেতা বাচ্চু হাসদা ছাড়াও জেলার হরিরামপুরের  আরেক ডাকসাঈটে  তৃনমুল থেকে বহির্ষকৃত নেতা সোনা পাল ও জেলা পরিষদের কর্মাধক্ষ বিশ্বনাথ পাহান বিজেপিতে যোগ দিতে আজ কলকাতায় রয়েছেন বলে খবর আসতে থাকে জেলায়। জেলা পরিষদের কর্মাধক্ষ বিশ্বনাথ পাহান জেলা তৃনমুল দলের চেয়ারম্যান  বিপ্লব মিত্রের অনুগামী হিসেবে পরিচিত।

২০১৯ সালে বিপ্লব মিত্র তৃনমুল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার সময় এই বিশ্বনাথ পাহান ও সেসময় তার সংগে বিজেপিতে যোগ দিয়ে ছিলেন।পরে সোনা পালের দাপটে ফের তৃনমুলে ফিরতে বাধ্য হন। এদিকে প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হতেই  জেলায় রাজনৈতিক পরিবেষ অস্থিরতার সুযোগ বুঝে ফের একবার তৃনমুল ছেড়ে বিজেপিতে গিয়ে ভিড়লেন। হরিরামপুর কেন্দ্রে এবারের তৃনমুল প্রার্থী তার একদা  রাইভাল তথা তৃনমুলের চেয়ারম্যান বিপ্লব মিত্র। যার সাথে তার আদায় কাচকলায় সম্পর্ক। বিপ্লব মিত্রকে হারাতেই তিনি বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন বলে জানা গেছে। ২০১৯ সালে দলের প্রতি ক্ষুদ্ধ হয়ে তৃনমুল ছেড়ে বিপ্লব মিত্র তার দলবল নিয়ে বিজেপি দলে যোগ দেওয়ার পর। এই সোনা পাল তার একার কৃতিত্বে বিপ্লব মিত্রের হাত ধরে বিজেপিতে চলে যাওয়া জেলা পরিষদ ও গঙ্গারামপুর পুরসভার সমস্ত কাউনসিলর ও জেলাপরিষদ সদস্যদের বপ্লব মিত্রের হাত থেকে ছিনিয়ে এনে  জেলা পরিষদ ও পুরসভা তৃনমুলে ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছিলেন। কিন্তু পরে দুর্নীতি নিয়ে কিছু ভিডিও ভাইরাল হতেই সোনাকে দল থেকে বহির্ষকার করতে বাধ্য হয় দল। পরে আর সেই সাসপেনসন দল উঠিয়ে নেয় নি। এবার এক ঢিলে দুই পাখি মারার মত  তার বদলা নিতেই সোনা পাল বিজেপিতে যোগ দিতে চলেছেন। যা নিয়ে জেলা তৃনমুলের মধ্যে ব্যাপক চাঞ্চল্ল্য দেখা দিয়েছে।