বিজেপি-তৃণমূলের চাপানুতরে আইনি জটিলতায় দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পরিষদ

39

বালুরঘাট ৫ ফেব্রুয়ারীঃ এক দিকে মেন্টর পদ নিয়ে আইনি নোটিশ অন্যদিকে বিজেপির তিন সদস্যের বিরুদ্ধে আনা অনাস্থা প্রস্তাবের জেরে উচ্চ আদালতের জারি করা স্থগিতাদেশ। আর এই দুই আইনি ঝামেলার সাড়াশি চাপে নাজেহাল তৃনমুল পরিচালিত দক্ষিন দিনাজপুর জেলা পরিষদের কর্তৃপক্ষ।

যদিও উচ্চ আদালতের নির্দেশে  অনাস্থা প্রস্তাব নিয়ে বুধবারের ডাকা তলবি সভা বাতিল করলেও মেন্টর পদ নিয়ে আইনি নোটিশের কি উত্তর  উচ্চ আদালতে দেওয়া হবে তার উত্তর খুজতেই দুপুরেই তড়িঘড়ি জেলা শাসকের দ্বারস্থ হয় জেলা পরিষদের মেন্টর শুভাশিষ পাল, সভাধিপতি লিপিকা রায় ও জেলা তৃনমুল সভাপতি অর্পিতা ঘোষ।

এদিকে জেলা বিজেপির তরফে এই দুই টি বিষয় নিয়ে ইতিমধ্যেই সরব হয়েছে বিজেপি নেতৃত্ব। জেলা বিজেপির সভাপতি বিনয় বর্মন অভিযোগ জানিয়ে বলেন, মেন্টর খায় না মাথায় দেয় কেউ জানেনা।অথচ তৃনমুল সরকারি পয়সা অপব্যায় করে এই পদ সৃষ্টি করে তাদের নেতাদের সরকারি সুযোগ সুবিধে অন্যায় ভাবে পাইয়ে দিচ্ছে।  উচ্চ আদালত এবিষয়ে যথাযথ ব্যাবস্থ্যা নেবে বলেই তাদের আশা। অপরদিকে ক্ষমতার অপব্যবহার করে তাদের দলের তিন সদস্যের বিরুদ্ধে অনাস্থা নিয়ে এসেছিল ওরা।এর বিরুদ্ধে আদালত যা উচিত মনে করেছে তাই করেছে। আশা করি আদালতে আমরা নায্য বিচার পাব।

যদিও জেলা পরিষদের সভাধিপতি লিপিকা রায় ও মেন্টর শুভাশীষ পাল এই আইনি ঝামেলার বিষয়ে সতর্ক দৃষ্টি রেখে  জানিয়েছে তারা এর বিরুদ্ধে আইনি পথেই হাটবেন। তাদের আইনজীবি ও জেলা প্রশাসনের পরামর্শ অনুযায়ী যাবতীয় আইনী নোটিশের পরিপ্রেক্ষিতে উচ্চ আদালতে নোটিশের জবাব দেওয়া হবে বলে তারা দুজনেই জানিয়েছেন।

২০১৯ এর ২৪ জুন জেলা পরিষদের সভাধিপতি সহ মোট ৯ জন তৃনমুল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়ায় ১৮  আসন বিশিষ্ট দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পরিষদ তৃনমুলের থেকে  দখল নেয় বিজেপি। পরে ধাপে ধাপে নানা অজুহাত দেখিয়ে সভাধিপতি সহ ৬ দলছুট ফের তৃনমূলে আশ্রয় নেন।কিন্তু তিন সদস্য চিন্তামনি বেওয়া,  শংকর সরকার ও মফিজউদ্দিন মিয়া বিজেপিতেই থেকে যান।

এদিকে সভাধিপতি ফের তৃনমুলে ফিরতেই জেলা পরিষদ কব্জা করতে ওই তিন সদস্যের স্থায়ি সমিতির পদ খারিজ করতে জেলার  ডিভিশনাল কমিশনারের( মালদা রেঞ্জ)  মধ্যমে অনাস্থা প্রস্তাব আনে শাসক দল। সেই অনাস্থা প্রস্তাবের নোটিশের বিরুদ্ধে এই তিনজন কলাকাতা উচ্চ আদালতের দ্বারস্থ হয়। জানা গেছে গতকাল উচ্চ আদালতের বিচারপতি অরিন্দম সিনহার এজলাসে বিষয়টি উঠলে বিচারক স