বিদ্যুতে বছরে ১০০০ কোটি টাকা করে ভর্তুকি দেয় রাজ্য সরকারঃ বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভনদেব

7

কলকাতা, ১১ সেপ্টেম্বরঃ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে রাজ্য জুড়ে সুলভে নিরবচ্ছিন্ন ও উন্নত মানের বিদ্যুত পরিষেবা পৌঁছে দিতে বদ্ধপরিকর সরকার।এর ফলে সরকারি উদ্যোগে বিদ্যুৎ ও অচিরাচরিত শক্তি উৎস দফতর বেশ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে বলে জানিয়েছেন রাজ্যের বিদ্যুৎ মন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। সিইএসসির বিদ্যুৎ মাসুল বৃদ্ধির প্রতিবাদে বিজেপির বিক্ষোভ কর্মসূচি ঘিরে বুধবারই ধুন্ধুমার চেহারা নেয় ধর্মতলা চত্বর। এই প্রেক্ষিতে নিজেদের অবস্থান পরিষ্কার করল রাজ্যের বিদ্যুৎ দফতর।

এদিন রাজ্যের বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন, রাজ্যে বিদ্যুতের মাশুল নির্ধারণ করে ইলেকট্রিসিটি রেগুলেটরি কমিশন। যা একটি স্বাধীন ও স্বতন্ত্র সংস্থা। কাজেই রাজ্যের যে সমস্ত অংশে বেসরকারি সংস্থা বিদ্যুত পরিষেবা প্রদান করে তার মাশুল রাজ্য সরকার নিয়ন্ত্রণ করে না। তা স্থির করে রেগুলেটরি কমিশন।

রাজ্যের বিদ্যুৎমন্ত্রী আরও জানিয়েছেন, কৃষি-শিল্প ও অন্যান্য বিষয় গুলির কথা মাথায় রেখে রাজ্যবাসীর উপর থেকে বোঝা কমানোর জন্য বছরে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে গড়ে প্রায় ১০০০ কোটি টাকা করে ভর্তুকি দেওয়া হচ্ছে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশেই ৩০০ ইউনিটের নীচে বিদ্যুৎ ব্যবহার হলে গ্রাহকদের ভর্তুকি দেওয়া হচ্ছে। বিদ্যুৎমন্ত্রী আরও জানিয়েছেন, কৃষিতে উন্নয়নের জন্য কৃষকদের বিদ্যুতে ভর্তুকি দিচ্ছে রাজ্য সরকার।